রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৮:০৯:১৩ পিএম

নামাজে দ্রুত রুকু-সেজদা ও এদিক-ওদিক তাকানো যাবে কি?

ধর্ম | শনিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৮ | ০১:০৬:০৯ পিএম

নামাজ ইসলামের প্রধান ইবাদত। ঈমান লাভের পর প্রাপ্ত বয়স্ক নারী ও পুরুষের জন্য নামাজ আদায় করা ফরজ। নামাজের রয়েছে অনেক নিয়ম-পদ্ধতি ও কিছু বিধি নিষেধ। এর মধ্যে নামাজে তাড়াহুড়া করা বা এদিক-ওদিক তাকানোও একটি। এগুলোর বিধান সম্পর্কে প্রিয়নবি সুস্পষ্ট বক্তব্য দিয়েছেন-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, ‘আমার একান্ত বন্ধু (প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) আমাকে নামাজে মোরগের ন্যায় ঠোকর দিতে ও শিয়ালের ন্যায় এদিক-ওদিক তাকাতে এবং বানরের ন্যায় (পায়ের পাতা খাড়া করে) বসতে নিষেধ করেছেন।’

প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলতেন-
‘সর্বাপেক্ষা নিকৃষ্ট চোর হচ্ছে সেই ব্যক্তি যে নামাজে চুরি করে। সাহাবাগণ জিজ্ঞাসা করলেন, ইয়া রাসুলাল্লাহ! নামাজে আবার চুরি করবে কিভাবে? উত্তরে প্রিয়নবি বললেন, সে নামাজে রুকু ও সেজদাগুলো পূর্ণ করে না।’ (মুসনাদে আহমদ, ইবনে আবি শায়বা, তাবারানি)

প্রিয়নবির হাদিস থেকে বুঝা যায় যে, নামাজে তাড়াহুড়া করা, এদিক-ওদিক তাকানো এবং পায়ের পাতা খাড়া করে বানরের মতো বসে নামাজ আদায় করা নিষেধ।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে নামাজে এদিক-সেদিক তাকানো, রুক ও সেজদা তাড়াহুড়া করা এবং বানরের মতো বসা থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন