শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮ ১০:৪৫:২৫ পিএম

সপ্তাহজুড়ে ২৩ প্রতিষ্ঠানের লভ্যাংশ ঘোষণা

অর্থনীতি | শনিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৮ | ০২:৩১:১৮ পিএম

গত সপ্তাহে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ২৩টি প্রতিষ্ঠান লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে ৮টি ব্যাংক, দুটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ৯টি বীমা কোম্পানি, চামড়া, ওষুধ ও সিমেন্ট খাতের একটি করে কোম্পানি এবং একটি বন্ড রয়েছে। ২০১৭ সালের ৩০ ডিসেম্বর সমাপ্ত বছরের জন্য প্রতিষ্ঠানগুলো লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।

প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- ইষ্টার্ণ ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, এক্সিম ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, ইষ্টার্ণ ইন্স্যুরেন্স, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স, রূপালী ইন্স্যুরেন্স, ইসলামী ইন্স্যুরেন্স বাংলাদেশ, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স, ফনিক্স ফাইন্যান্স, ইউনিয়ন ক্যাপিটাল, হাইডেলবার্গ সিমেন্ট, আইবিবিএল মুদারাবা পারপেচুয়াল বন্ড, ম্যারিকো বাংলাদেশ এবং বাটা সু। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই জানিয়েছে, প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালনা পর্ষদ ২০১৭ সালে সমাপ্ত বছরের আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে লভ্যাংশ ঘোষণার পাশাপাশি ত পাওয়ার যোগ্য বিনিয়োগকারী নির্ধারণে রেকর্ড ডেট এবং ঘোষিত লভ্যাংশ শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) তারিখ নির্ধারণ করেছে।

ইষ্টার্ণ ব্যাংক : কোম্পানিটি সাড়ে বিগত বছরের জন্য ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ মে। আর এজিএম অনুষ্ঠিত হবে ৫ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩ টাকা ২৯ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৯ টাকা ৬৪ পয়সা।

ইসলামী ব্যাংক : বিগত ২০১৭ সালে সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য বেসরকারি খাতের এই শীর্ষ ব্যাংকটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ মে। আর এজিএম অনুষ্ঠিত হবে ২৫ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস হয়েছে ৩ টাকা ৬ পয়সা।

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক : কোম্পানিটি ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৩১ মে। এজিএম অনুষ্ঠিত হবে ৮ জুলাই। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৭৪ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ৬৫ পয়সা।

এক্সিম ব্যাংক : কোম্পানিটি সাড়ে ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২২ মে। এজিএম হবে ২৭ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৩৪ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৫৮ পয়সা।

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক : বিগত বছরের জন্য কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের সাড়ে ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ মে। এজিএম হবে ২৬ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৮৯ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৫১ পয়সা।

ঢাকা ব্যাংক : কোম্পানিটি সাড়ে ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ মে। এজিএম অনুষ্ঠিত হবে ২৮ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ২৩ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২ টাকা ১৫ পয়সা।

যমুনা ব্যাংক : বিনিয়োগকারীদের ২২ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে যমুনা ব্যাংক। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২২ মে। এজিএম অনুষ্ঠিত হবে ২৪ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ৩ টাকা ৩৮ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকা ১২ পয়সা।

সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক : বিগত বছরের জন্য কোম্পানিটি ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২২ মে। এজিএম ২৭ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৯৮ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি)দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ২১ পয়সা।

বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ মে। এজিএম অনুষ্ঠিত হবে ২৫ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ১০ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৭৬ পয়সা।

ইস্টার্ণ ইন্স্যুরেন্স : শেয়ার মালিকদের ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে বীমা খাতের এ কোম্পানিটি। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৯ মে। আর এজিএম হবে ২৫ জুলাই। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ৩ টাকা ৪৭ পয়সা। ফলে শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ৪০ টাকা ৭৬ পয়সা।

এশিয়া ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৭ মে। আর বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে ১১ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৭৭ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা ৫২ পয়সা।

ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স : বিনিয়োগকারীদের ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩ মে। এজিএম ২৪ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ৫৮ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১১ টাকা ৫০ পয়সা।

ইসলামী ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটি ৫ শতাংশ নগদ এবং ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২২ মে। এজিএম ১৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে প্রতিষ্ঠানটির ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৪৪ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৩ টাকা ৮১ পয়সা।

রূপালী ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটি ৫ শতাংশ নগদ এবং ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৪ মে। এজিএম ৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ১ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ২০ পয়সা।

সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটি ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩ মে। ২৫ জুন অনুষ্ঠিত হবে এজিএম। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৭৩ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ৮১ পয়সা।

পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটি ১৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২২ মে। এজিএম ২৭ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ৩ টাকা ৪৩ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৪১ টাকা ৭১ পয়সা।

প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স : কোম্পানিটি ১০ শতাংশ বোনাস শেয়ার দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২২ মে। এজিএম ৯ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৪৩ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৪ টাকা ২৮ পয়সা।

ম্যারিকো বাংলাদেশ : কোম্পানিটি নগদ ১০০ শতাংশ চূড়ান্ত লভ্যাংশ দেবে। এর আগে ৫০০ শতাংশ অন্তর্বর্তীকালীন লভ্যাংশ ঘোষণা করে কোম্পানিটি। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ জুন। এজিএম ১৮ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ৫২ টাকা ১৫ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৪৭ টাকা ৩৮ পয়সা।

ইউনিয়ন ক্যাপিটাল: কোম্পানিটি ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৮ মে। এজিএম ২৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ৯৯ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৪ টাকা ৬১ পয়সা।

ফিনিক্স ফাইন্যান্স : কোম্পানিটি ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৪ মে। এজিএম ২৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৩৫ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২১ টাকা ৪১ পয়সা।

বাটা সু : কোম্পানিটি নগদ ১০৫ শতাংশ চূড়ান্ত লভ্যাংশ দেবে। এর আগে কোম্পানিটি ২৩০ শতাংশ অন্তর্বর্তীকালীন লভ্যাংশ ঘোষণা করে। রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩ মে। এজিএম ২১ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ৮২ টাকা ৩৪ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৬১ টাকা ৩৫ পয়সা।

হাইডেলবার্গ সিমেন্ট : কোম্পানিটি ১৫০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেবে। এ জন্য রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ মে। এজিএম অনুষ্ঠিত হবে ৭ জুন। সমাপ্ত হিসাব বছরে ইপিএস হয়েছে ১৪ টাকা ২১ পয়সা। শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৮৩ টাকা ১৭ পয়সা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন