শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ ০৬:২৯:২০ এএম

উচ্চতর শিক্ষার জন্য অস্ট্রেলিয়া একটি প্রিয় গন্তব্যস্থল

জাতীয় | শনিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৮ | ০৫:৪২:৪৯ পিএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অস্ট্রেলিয়ার সেরা জ্ঞান আহরণের সুযোগ গ্রহণের জন্য সেদেশে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।


স্থানীয় সময় শনিবার সকালে অস্ট্রেলিয়ার ওয়েস্টার্ন সিডনি ইউনিভার্সিটি পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। খবর বাসসর।

পরমাত্তা সাউথ ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে দেয়া এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের উচ্চতর শিক্ষার জন্য অস্ট্রেলিয়া একটি প্রিয় গন্তব্যস্থল। প্রায় ২০০ শিক্ষার্থী ওয়েস্টার্ন সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ এলডিসি থেকে গ্র্যাজুয়েশনের মাধ্যমে উন্নয়নের পরবর্তী পর্যায়ে চলে যাচ্ছে, আমাদের আরও বেশি মানবিক ক্ষমতা দরকার। অস্ট্রেলিয়া এক্ষেত্রে প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দান এবং বৃত্তিমূলক শিক্ষায় প্রশিক্ষণ দিয়ে অবদান রাখতে পারে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং সভাপতি প্রফেসর বার্নি গ্লোভার, শিক্ষকবৃন্দ এবং শিক্ষার্থীদের একটি বড় অংশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ডব্লিউএসইউ বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের বিচার ব্যবস্থাপনার সক্ষমতা বৃদ্ধিতে এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগ এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ে জন্য প্রশিক্ষণদান কর্মসূচির মাধ্যমে সহায়তা প্রদান করছে।

এর আগে শুক্রবার নারীর ক্ষমতায়নে অসামান্য অবদানের জন্য গ্লোবাল সামিট অব উইমেন্স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০১৮ গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিন সন্ধ্যায় অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেখ হাসিনার হাতে এই মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কারটি তুলে দেয়া হয়।

পুরস্কার গ্রহণকালে প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতা কাজে লাগাতে এবং তাদের সহযোগিতা ও অধিকার তুলে ধরতে একটি নতুন বৈশ্বিক জোট গঠনের আহ্বান জানান।

নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তনে বিশ্বব্যাপী যেসব নারী কাজ করে যাচ্ছেন তাদের উদ্দেশ্যে পুরস্কারটি উৎসর্গ করেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে গ্লোবাল উইমেন্স লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন নারী উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী ও প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী নারী প্রতিনিধিরা।

পুরস্কার গ্রহণের পর সিডনির হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান তারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন