বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮ ০৬:১২:২৩ এএম

রোহিতের ব্যাটে মুস্তাফিজহীন মুম্বাইয়ের জয়

খেলাধুলা | রবিবার, ২৯ এপ্রিল ২০১৮ | ১০:৫৫:৩৬ এএম

দলের প্রথম ছয় ম্যাচেই একাদশে ছিলেন। কাল প্রথমবারের মতো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের একাদশ থেকে বাদ পড়লেন মুস্তাফিজুর রহমান। বাংলাদেশের পেসারকে ছাড়াই অবশ্য জিতেছে মুম্বাই। অধিনায়ক রোহিত শর্মার অপরাজিত ফিফটিতে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা চেন্নাই সুপার কিংসকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে।

এবারের আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচেই মুখোমুখি হয়েছিল মুম্বাই ও চেন্নাই। যেখানে শেষ ওভারে ১ বল হাতে রেখে ১ উইকেটের রুদ্ধশ্বাস জয় পেয়েছিল চেন্নাই। সেই যে হতাশার শুরু, পরের পাঁচ ম্যাচে মুম্বাইয়ের জয় মাত্র একটি। কাল মহেন্দ্র সিং ধোনির দলকে হারিয়ে প্রতিশোধ নেওয়ার পাশাপাশি দ্বিতীয় জয় পেল রোহিত শর্মার দল।

লড়াইটা ছিল পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দলের (চেন্নাই) সঙ্গে টেবিলের তলানির দলের (মুম্বাই)। পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমেছিল চেন্নাই। কিন্তু দলের ২৬ রানেই ফিরে যান অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান শেন ওয়াটসন।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে আম্বাতি রাইডু ও সুরেশ রায়না দারুণ ব্যাটিংয়ে দলকে এগিয়ে নেন। ১০ ওভারে চেন্নাইয়ের স্কোর ছিল ১ উইকেটে ৯১। কিন্তু রাইডু ৩৫ বলে ৪৬ করে ফেরার পরই রানের গতি কমে যায় চেন্নাইয়ের।

অধিনায়ক ধোনি যখন ২১ বলে ২৬ রান করে ফিরলেন, দলের স্কোর ১৭.১ ওভারে ৩ উইকেটে ১৪৩। শেষের দাবি মেটাতে পারেননি ডোয়াইন ব্রাভো ও স্যাম বিলিংস। ব্রাভো মেরেছেন গোল্ডেন ডাক, বিলিংস করেছেন ৫ বলে ৩।

রায়নার অপরাজিত ৭৫ রানে শেষ পর্যন্ত ৫ উইকেটে ১৬৯ রানের পুঁজি পায় চেন্নাই। ৪৭ বলে ৬ চার ও ৪ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান বাঁহাতি ব্যাটসম্যান রায়না।

মুস্তাফিজের বদলে মুম্বাইয়ের একাদশে আসা বেন কাটিং বোলিং পেয়েছেন মাত্র ১ ওভার। অস্ট্রেলিয়ান পেসার ১ ওভারে ১৪ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন। দুটি করে উইকেট পেয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া ও মিচেল ম্যাকক্লেনাগান।

লক্ষ্য তাড়ায় দুই ওপেনার সূর্যকুমার যাদব ও এভিন লুইসের ব্যাটে দারুণ সূচনা পায় মুম্বাই। ৬৯ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়ার পথে ৩৪ বলে ৫ চার ও এক ছক্কায় ৪৪ রান করেন সূর্যকুমার। ফিফটির সুযোগ হাতছাড়া করেছেন লুইসও। ৪৩ বলে ৩ চার ও ২ ছকায় ৪৭ রান করে ফিরেছেন ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান।

তবে তিনে নামা রোহিত দারুণ এক ফিফটিতে দলকে জিতিয়ে তবেই মাঠ ছাড়েন। ১৯তম ওভারে শার্দুল ঠাকুরের শেষ পাঁচ বলে চারটি চার হাঁকিয়ে ৩১ বলে পঞ্চাশ পূর্ণ করেন রোহিত। শেষ ওভারে ৫ রানের প্রয়োজনে ২ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে নোঙর ফেলে মুম্বাই।

মুস্তাফিজের সঙ্গে এদিন মুম্বাই একাদশে পরিবর্তন এসেছিল আরো একটি। কাইরন পোলার্ডের জায়গায় সুযোগ পেয়েছিলেন জেপি ডুমিনি। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডার কিছুই করে দেখানোর সুযোগ পাননি; না ব্যাটিং, না বোলিং!

এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলের ছয়ে উঠে এসেছে মুম্বাই। পয়েন্ট টেবিলের নিচের তিন দল- মুম্বাই, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের পয়েন্ট সমান ৪। ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে চেন্নাই। পরের দুটি স্থানে থাকা সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের পয়েন্টও সমান ১০। সমান ৬ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছে কলকাতা নাইট রাইডার্স ও রাজস্থান রয়্যালস।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন