সোমবার, ২১ মে ২০১৮ ০৯:১৫:১১ পিএম

ঢাবিতে আলোচনায় যারা

রাজনীতি | সোমবার, ৩০ এপ্রিল ২০১৮ | ০৮:৫০:৩০ পিএম

রাত পোহালেই সম্মেলন ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার। কেন্দ্রের পরই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শাখা হলো এটি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে ঘিরেই বাঙালির সকল আন্দোলন-সংগ্রাম সংগঠিত হয়েছে। সম্মললনের মধ্য দিয়ে ঢাবি ছাত্রলীগ নতুন নেতৃত্ব আসবে। ইতিমধ্যে সম্মেলন সফল করতে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

নতুন নেতৃত্বে কারা আসতে পারেন তা নিয়ে শুরু হয়েছে নানা হিসাব-নিকাশ। বিশেষ করে সংগঠনের প্রধান দুটি পদ- সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ দুটির দিয়ে সবার দৃষ্টি। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে গুরুত্বপূর্ণ এই ইউনিটের এবারের সম্মেলনে কীভাবে নেতৃত্ব নির্ধারিত হবে বা কারা কারা মূল নেতৃত্বে আসবে তা এখনও রয়েছে অনিশ্চয়তা মধ্যে।

তবে বরাবরের মতো এবারো আলোচিত প্রার্থীদের পাশে এলাকার পরিচিতি উঠে আসছে। সে হিসেবে এবারো বরিশাল, চট্টগ্রাম, উত্তরবঙ্গ ও ফরিদপুরের প্রার্থীদের নাম বেশি শোনা যাচ্ছে।তবে আঞ্চলিক সমীকরণের ভিত্তিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখায় যেকোন দুটি অঞ্চল থেকে নেতৃত্ব বাছাই করা হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতৃত্বের আলোচনায় থাকা প্রার্থীরা প্রত্যেকে নিজেদের যোগ্য বলেই মনে করছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন পদপ্রত্যাশী জানিয়েছেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে যারা সফলতার সঙ্গে কাজ করতে পারবে। যাদের ইমেজ ক্লিন তারা যেনো এ দুইটি পদের কর্ণধার হয়। যাদের ব্যাপারে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে তাদের যেন বড় পদে না আনা হয়। অভিযুক্তরা গুরুত্বপূর্ণ পদে আসে তাহলে সংগঠনে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে।

ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীদের মধ্যে আলোচনায় রয়েছে যেসকল প্রার্থী। তারা হলেন, এস এম হল শাখা ছাত্রলীগে সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেল, এ এফ রহমান হলের সভাপতি হাফিজুর রহমান, সাধারন সম্পাদক মাহমুদুল হাসান তুষার, কবি জসিম উদ্দিন হলের সাধারন সম্পাদক শাহেদ খান,বঙ্গবন্ধু হলের সাবেক সাধারন সম্পাদক ইয়াদ আল রিয়াজ, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক দিদার মো: নিজামুল ইসলাম, জহুরুল হক হলের সাবেক সাধারন সম্পাদক আল নাহিয়ান খান জয়, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক খাদেমুল বাশার জয়, মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের সভাপতি ইউসুফ উদ্দিন খান, ঢাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বিদ্যুৎ শাহরিয়ার কবির, বিজয় একাত্তর হলের সাবেক সাধারন সম্পাদক ফুয়াদ হোসাঈন শাহাদাত এবং কেন্দ্রীয় কমিটির আইন বিষয়ক উপ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাঈন।

ছাত্রলীগের এসব নেতারা ইতিমধ্যে পদ নিশ্চিত করতে লবিং-তদবির দৌঁড়ঝাপ করেছেন। তবে এর বাহিরেও রয়েছে আরও বেশ কয়েকজন নেতার নাম। এদের বেশ কয়েকজনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা এখনই প্রকাশ্যে কিছু বলতে চাচ্ছেন না। কারণ হিসেবে যুক্তি দাড় করাচ্ছেন, যদি এখনই প্রকাশ্যে কিছু বলেন তাহলে হিতে বিপরীত হতে পারে। এই আশংঙ্কা থেকেই কেউ প্রকাশ্যে কিছুই বলছেন না।

সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটির ব্যাপারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান বলেন, আমি চাই যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে লালন পালন করেন এবং যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ নেই তারাই নেতৃত্বে আসুক। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিষয়টি বিবেচনা করে নেতা বানানো হোক। সম্মেলনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সম্মেলনের দিন অর্থাৎ ২৯ এপ্রিল সকাল ১০টায় ঢাবি অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে সম্মেলন উদ্বোধন করবেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, প্রধানবক্তা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান এবং সঞ্চালনা করবেন ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন