বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ ০১:০২:০৩ পিএম

ইউরোপিয়ান শিরোপা অধরাই রইল ওয়েঙ্গারের, ফাইনালে অ্যাটলেটিকো

খেলাধুলা | শুক্রবার, ৪ মে ২০১৮ | ০৯:৪৩:৫৮ এএম


ইউরোপিয়ান শিরোপা জয়ের স্বপ্নটা অধরাই রয়ে গেল আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গারের। তার দলকে হারিয়ে ইউরোপা লিগের ফাইনালে উঠেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

আর্সেনালের মাঠে সেমিফাইনালের প্রথম লেগের ম্যাচ ১-১ গোলে ড্র হয়েছিল। নিজেদের মাঠে বৃহস্পতিবার রাতে ফিরতি লেগে দিয়েগো কস্তার একমাত্র গোলে জিতেছে অ্যাটলেটিকো। দুই লেগ মিলিয়ে ২-১ গোলের অগ্রগামিতায় তৃতীয়বারের মতো ইউরোপের দ্বিতীয় মর্যাদাপূর্ণ প্রতিযোগিতার ফাইনালে উঠেছে স্প্যানিশ ক্লাবটি।

এই মৌসুম শেষেই আর্সেনাল ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন ওয়েঙ্গার। ক্লাবটির হয়ে ২২ বছরের কোচিং ক্যারিয়ারে কখনো ইউরোপিয়ান শিরোপা জিততে পারেননি ফরাসি এই কোচ।

প্রিমিয়ার লিগের অবস্থান থেকে আর্সেনালের আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা হচ্ছে না। ইউরোপা লিগ জিতে সুযোগ ছিল ইউরোপের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ প্রতিযোগিতায় খেলার। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্নও ভেঙে চুরমার হয়ে গেল।

এমিরেটস স্টেডিয়ামে রেফারির সিদ্ধান্তে অসন্তোষ জানিয়ে ম্যাচের শুরুর দিকেই ডাগআউট ছাড়তে হয়েছিল অ্যাটলেটিকোর কোচ দিয়েগো সিমিওনেকে। আর্জেন্টাইন কোচ প্রথম লেগের শাস্তিটা ভোগ করেছেন কাল ফিরতি লেগেও, খেলা দেখেছেন ভিআইপি বক্স থেকে।

ওয়ান্ডা মেট্রোপলিতানোতে বল দখলের লড়াইয়ে অবশ্য অ্যাটলেটিকোর চেয়ে এগিয়ে ছিল আর্সেনালই। কিন্তু গোলের সুযোগ তৈরি করতে বেগ পেতে হয়েছে অতিথিদের। এর মধ্যে আবার দ্বাদশ মিনিটে মারাত্মক চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন আর্সেনাল অধিনায়ক লরেন্ট কোসিলনি। ৩২ বছর বয়সি ফরাসি এই সেন্টার ব্যাক খুব সম্ভবত রাশিয়া বিশ্বকাপেও খেলতে পারবেন না!

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে অ্যাটলেটিকোকে এগিয়ে দেন কস্তা। আঁতোয়ান গ্রিজমানের বাড়ানো বল ধরে এড়িয়ে গিয়ে গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে জালে পাঠান ব্রাজিলীয় বংশোদ্ভূত এই স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে ফেরার সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি অতিথিরা। কস্তার ওই গোলই তাই অ্যাটলেটিকোর ফাইনালে ওঠার জন্য যথেষ্ট ছিল।

আগামী ১৬ মে লিওঁতে ফাইনালে অ্যাটলেটিকোর প্রতিপক্ষ অলিম্পিক মার্শেই। অস্ট্রিয়ান ক্লাব রেড বুল সালজবার্গকে পেছনে ফেলে ফাইনালে উঠেছে ফরাসি ক্লাবটি।

সেমিফাইনালের প্রথম লেগে নিজেদের মাঠে সালজবার্গকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল মার্শেই। বৃহস্পতিবার রাতে ফিরতি লেগে ৬৫ মিনিটের মধ্যেই দুই গোল শোধ দিয়েছিল সালজবার্গ। অতিরিক্ত সময়ে ম্যাচের ১১৬ মিনিটে রোলানদোর গোলে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ গোলের অগ্রগামিতায় ফাইনালে ওঠে মার্শেই।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন