শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৯:১৯:২৩ এএম

‘ফলাফল ঘোষণার আনন্দের দিনে শিক্ষামন্ত্রীর এমন বক্তব্য অনৈতিক’(ভিডিও)

জাতীয় | সোমবার, ৭ মে ২০১৮ | ০৮:৫১:১৭ এএম

সাপ্তাহিকের সম্পাদক গোলাম মোর্তজা বলেন, প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে পারেনি সেই প্রশ্নে যাদের হাতে গেছে, যেসকল শিক্ষার্থী ওই প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছে। তাদের যেমন অপরাধ হয়েছে, তেমনি প্রশ্নফাঁস হওয়া ঠেকাতে না পারাটার অপরাধও বেশি হয়েছে । প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে ব্যর্থতার জন্য শিক্ষামন্ত্রীও দায়ী।

মিথিলা ফারজানার সঞ্চালনায় একাত্তর টেলিভিশনের নিয়মিত অনুষ্ঠান একাত্তর জার্নালে তিনি একথা বলেন। এছাড়া ছিলেন ডিবিসির প্রধান সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম।

গোলাম মোর্তজা বলেন, এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল দিল তাতে এবার পাসের হার কমেছে কিন্তু বেড়েছে জিপিএ-৫। প্রশ্নফাঁস হয়েছে বেশির ভাগ এসএসসি পরীক্ষায়। প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী কম কথা বলেনি। আবার রেজাল্টের দিন তিনি যা বলল খাতা ভালোভাবে দেখা হয়েছে। তাহলে কি আগে ভালো করে খাতা দেখা হয়নি? এটা করে থাকলে সেটা একটা অপরাধ ছিল। তার আগে আমি বলেনি নেয় ফলাফল যে দিয়েছে। এমন আনন্দের দিন শিক্ষার্থীদের জীবনে একবারই আসে।

তবে যেকারণে শিক্ষামন্ত্রী কথায় আমি ব্যথিত হয়েছি সেটি হলো শিক্ষার্থীদের নিয়ে তার হুমকি। তিনি তাদের উদ্দেশ্য করে বলেছেন যেসকল শিক্ষার্থী ফাঁস হওয়া প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছে তাদের শান্তিতে থাকতে দেওয়া হবে না,শিক্ষাজীবন ক্ষতিগ্রস্ত হবে,চাকরি পাবে না। প্রত্যেককে খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনা হবে বলেছেন। অনেক শিক্ষার্থী এখনো আটক হয়ে জেলেই আছে।

মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী জানে একজন স্কুল ছাত্রের পক্ষে প্রশ্নফাঁস করা সম্ভব না। প্রশ্নফাঁস যারা করেছেন তারা সবাই শিক্ষামন্ত্রীর ব্যবস্থাপনায় কাজ করে। সেখানকার লোকরা প্রশ্নফাঁস করেছে। যদি প্রশ্নফাঁসের জন্য অন্য কেউ দায়ী হয় সেই দায়ী শিক্ষামন্ত্রী নিজে। নিজে দায়ী হয়ে শিক্ষার্থীদের ফলাফর ঘোষণার আনন্দের দিনে আজকে যেভাবে তিনি হুমকি দিলেন। এটা অত্যন্ত অনৈতিক। তিনি এমন আনন্দের দিনে এমন হুমকি দিতে পারেন না।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন