রবিবার, ২২ জুলাই ২০১৮ ০৮:৩৬:২০ এএম

৯২ বছর বয়সে নতুন এক ইতিহাস নির্মাণ করতে যাচ্ছেন মাহাথির

আন্তর্জাতিক | বুধবার, ৯ মে ২০১৮ | ০২:২৬:২৭ পিএম

কি ঘটবে আজ মালয়েশিয়ায়! ৬১ বছরের রাজনৈতিক রেকর্ড কি ভেঙে দিতে পারবেন ৯২ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ! নাকি প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক ক্ষমতাসীন বারিশান ন্যাশনালকে পূর্বের সব ধারাবাহিকতা রক্ষা করে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখতে পারবেন! এমন শতেক প্রশ্নকে সামনে রেখে মালয়েশিয়ায় আজ শুরু হয়েছে পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। ৬১ বছরের মধ্যে মালয়েশিয়ায় যতগুলো নির্বাচন হয়েছে তার মধ্যে আজকের নির্বাচন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী নাজিবকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন তারই রাজনৈতিক গুরু ও বর্তমানে প্রতিপক্ষ মাহাথির। মাহাথির মোহাম্মদ বিরোধী জোট থেকে নির্বাচনে লড়াই করছেন। মালয়েশিয়ার মতো দেশে বিরোধী জোটের বিজয় একরকম অপ্রত্যাশিত। কারণ, বিগত ৬১ বছরে বিরোধীরা ক্ষমতার স্বাদ পায় নি। তবে ধারনা ৯২ বছর বয়সে নতুন এক ইতিহাস নির্মাণ করতে যাচ্ছেন মাহাথির।

তাই যদি মাহাথির তার নিজের ব্যক্তিগত ক্যারিশমা দেখাতে পারেন তাহলে সেখানে রচিত হবে নতুন এক ইতিহাস। তিনি আবারও ৯২ বছর বয়সে প্রধানমন্ত্রী হবেন। শুধু তা-ই নয়, একই সঙ্গে তিনি হবেন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী প্রধানমন্ত্রী। সমালোচকরা নির্বাচন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন। নির্বাচন অবাধ ও মুক্ত হওয়া নিয়ে তাদের সংশয় রয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে আরো বলা হয়েছে, মালয়েশিয়ার রাজনীতিতে স্বাধীনতা অর্জনের পর থেকে প্রাধান্য বিস্তার করে আছে ক্ষমতাসীন বারিশান ন্যাশনাল জোট ও এর বড় দল ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (ইউএমএনও)।

কিন্তু এক সময়ের শক্তিশালী এই জোটের জনপ্রিয়তা অনেকটাই কমে গেছে। ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে অপ্রত্যাশিত ফল করে বিরোধী জোট। তারা জনপ্রিয় ভোটের বেশির ভাগ পায়। কিন্তু সরকার গঠনের জন্য পার্লামেন্টে পর্যাপ্ত আসন পেতে ব্যর্থ হয়। ওই সময়ে নাটকীয় এক পরিবর্তন ঘটে। তখনকার বিরোধী দলীয় নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমকে সমকামিতার অভিযোগে ৫ বছরের জেল দেয়া হয়। আনোয়ার ইব্রাহিম একে তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ধ্বংসের ষড়যন্ত্র বলে আখ্যায়িত করেছেন।

২০১৩ সালের নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেন নাজিব রাজাক। এরপর সময় পেরুতে থাকে। এক পর্যায়ে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় একটি তহবিল থেকে প্রায় ৬৮ কোটি ডলার আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে। এ পর্যন্ত ক্ষমতাসীন বারিশান ন্যাশনাঠের অখ- অংশ ছিলেন মাহাথির মোহাম্মদ। কিন্তু নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে এত বড় দুর্নীতির অভিযোগ ওঠার পর ২০১৬ সালে ওই জোট থেকে বেরিয়ে আসেন মাহাথির। তিনি নিজে একটি রাজনৈতিক দল গঠন করেন। এবারের নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি হাত মিলান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ জেলবন্দি আনোয়ার ইব্রাহিমের সঙ্গে।

তাদের মধ্যে চুক্তি হয় নির্বাচিত হলে প্রথম দু’বছর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতায় থাকবেন মাহাথির মোহাম্মদ। এরপর আনোয়ার ইব্রাহিমকে সাধারণ ক্ষমা দিয়ে জেল থেকে মুক্ত করবেন এবং তার হাতে তুলে দেবেন ক্ষমতার চাবিকাঠি। এমনই এক বোঝাপড়ার মাধ্যমে তারা গড়ে তোলেন বিরোধী দলীয় জোট পাকাতান হারাপান। আজকের এ নির্বাচনে মালয়েশিয়ানরা পার্লামেন্টের ২২২ আসনে প্রার্থী নির্বাচিত করবেন। একই সঙ্গে তারা ১৩টি রাজ্যের মধ্যে ১২টিতে প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নির্বাচিত করবেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন