রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ ০৫:৫৩:৫০ এএম

ভারতীয় তরুণীর অনুরোধে ‘ডেটিং অ্যাপ’ আনলেন জাকারবার্গ!

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি | বুধবার, ৯ মে ২০১৮ | ০৩:৫৬:৪৮ পিএম

ভারতের কেরালার মেয়ে জ্যোতি কে জি। এই তরুণী সপ্তাহ দুয়েক আগে এক অদ্ভুত কাণ্ড ঘটিয়ে ছিলেন। তা হলো- ২৮ বছরের এই তরুণী ‘ফেসবুক অ্যাকাউন্টে’ নিজেই নিজের বিয়ের বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন।

মালয়লি/মালায়ালাম ভাষায় লেখা নিজের বিয়ের বিজ্ঞাপনে জ্যোতি লিখেছিলেন, ‘আমি অবিবাহিত, আমার বন্ধুবান্ধব যদি কাউকে চেনেন, তাহলে অবশ্যই আমাকে জানাবেন। আমার কোনো দাবি নেই। জাত ও কুণ্ডলী বিচারে কোনো আগ্রহ নেই। আমার বাবা-মা গত হয়েছেন (মারা গেছেন)। ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে স্নাতক পাস করেছি। আমার বয়স ২৮ বছর। আমার ভাই মুম্বাইয়ে কর্মরত ও ছোট বোন পড়াশোনা করছে। আমার ঠিকানা...।’

ফেসবুকে এই অভিনব কায়দায় বিজ্ঞাপন দেয়ার পরে অসংখ্য বিয়ের প্রস্তাব পান জ্যোতি। অনেকে তাকে শুভেচ্ছাও জানান। গত ২৬ এপ্রিল জ্যোতির ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা সেই বিয়ের বিজ্ঞাপনটিতে ইতোমধ্যে ১১ হাজারের বেশি লাইক পড়েছে। এবং ৬ হাজারেরও বেশি বার শেয়ার হয়েছে।

#FacebookMatrimony #FBMatrimony দিয়ে নিজের বিয়ের বিজ্ঞাপনটি পোস্ট করার পাশাপাশি, ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গকেও একটি বার্তা পাঠান কেরালার মেয়ে জ্যোতি কে জি।

জ্যোতির ইংরেজিতে লেখা সেই বার্তায় তিনি মার্ক জাকারবার্গ ও তার স্ত্রী প্রিসিলা চ্যানকে অনুরোধ করেন ফেসবুকে ‘ম্যাট্রিমোনিয়াল সার্ভিস’ শুরু করার।

জ্যোতির ভাষ্য, এমন টা হলে তার মতো অনেকেই খুব উপকৃত হবেন বলে মনে করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১ মে এক সম্মেলনে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ ঘোষণা করেন একটি ডেটিং অ্যাপের কথা, যা খুব শিগগিরই লঞ্চ হবে ফেসবুকে।

ফেসবুক কর্তার কথায়, এই অ্যাপের লক্ষ্য হবে ‘রিয়্যাল লং-টার্ম’ সম্পর্ক গড়ে তোলা। প্রচলিত ডেটিং অ্যাপ ‘টিন্ডার’-এর মতো বেশ কিছু ফিচার থাকবে ফেসবুকের এই নতুন ডেটিং অ্যাপে।

এর আগে, ২০১৭ সালে এমনই একটি বিয়ের বিজ্ঞাপন ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন কেরালারই রঞ্জিশ মঞ্জরী নামে একজন ব্যক্তি। আর আনন্দের খবর হলো- চলতি বছরের এপ্রিল মাসেই তার বিয়ে হয়েছে বলে জানা যায়।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন