শনিবার, ২৬ মে ২০১৮ ১০:১১:৪১ এএম

৯ জেলায় বজ্রপাতে ১৮ জনের মৃত্যু

জাতীয় | বুধবার, ৯ মে ২০১৮ | ০৪:৫৫:৫৯ পিএম

আজও দেশের বিভিন্ন জেলায় বজ্রপাতে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ৩১ জন। বুধবার (৯ মে) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত রাজধানীসহ সারাদেশে হাওয়া ঝড় ও বজ্রবৃষ্টিতে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নয় জেলার প্রতিনিধিদের পাঠানো প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এর মধ্যে সুনামগঞ্জে দুই জন, সিরাজগঞ্জে এক, গাইবান্ধা এক, মানিকগঞ্জে দুই, রাজশাহী দুই, ময়মনসিংহ এক, কিশোরগঞ্জ দুই, নারায়ণগঞ্জ এক ও হবিগঞ্জে ছয়জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

সুনামগঞ্জে পৃথক স্থানে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন- ধর্মপাশা উপজেলার সদর ইউনিয়নের দুর্বাকান্দা গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে জুয়েল আহমদ (১৬) ও শাল্লা উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের ইসহাক আলীর ছেলে আলমগীর মিয়া (২২)।

সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে বজ্রপাতে সমতুল্লাহ (৫০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় শাকিল মিয়া (১৫) নামে এক স্কুলছাত্র আহত হয়েছে। নিহত সমতুল্লাহ উপজেলার নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নের পানাগাড়ি গ্রামের বাসিন্দা। আহত শাকিল একই উপজেলার খাস রাজবাড়ি গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে।

গাইবান্ধার ফুলছড়িতে বজ্রপাতে মহর আলী (৩৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। মহর উপজেলার আলী উড়িয়া ইউনিয়নের কাবিলপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদ মিয়ার ছেলে।

মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে বজ্রপাতে ইয়াকুব আলী (৪৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। ইয়াকুব উপজেলার বাঁচামারা ইউনিয়নের হাচাদিয়া গ্রামের হাবেজ আলীর ছেলে।

এছাড়া দৌলতপুরের কলিয়া ইউনিয়নের তালুকনগর এলাকায় বজ্রপাতে আশরাফুল ইসলাম অন্তর নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও সাত স্কুলছাত্র।

রাজশাহীর তানোর উপজেলায় বজ্রপাতে দু’জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দু’জন। নিহতরা হলেন- উপজেলার পাঁচন্দর ইউনিয়নের দুবইল নামোপাড়া গ্রামের সামসুদ্দীনের ছেলে সোহাগ আলী (১৮) ও বাতাসপুর গ্রামের লোকমান আলী ছেলে কৃষক আনছার আলী (৩০)। তবে আহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

ময়মনসিংহ সদর উপজেলায় বজ্রপাতে আলাল উদ্দিন নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও ময়মনসিংহের পৃথক স্থানে বজ্রপাতে আরও ১২ জন আহত হয়েছেন। তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন