শুক্রবার, ১৭ আগস্ট ২০১৮ ০৯:৩১:৩৪ এএম

মাথার ত্বকের সমস্যায় ১০০ ভাগ কার্যকরী হেয়ার টনিক

স্বাস্থ্য | বৃহস্পতিবার, ১০ মে ২০১৮ | ০৯:৫১:৩০ এএম


শীতের মতো বর্ষাকালেও কিন্তু খুশকির উৎপাত থাকে মারাত্মক। স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়ার কারণে অনেকের চুলের গোড়ায় হয় ফাঙ্গাসের আক্রমণ, মরা চামড়া উঠতে থাকে। চুল পড়া থেকে শুরু করে মাথার ত্বকে চুলকানিসহ অনেক রকম চুলের সমস্যা দেখা দিয়ে থাকে এই সময়। কোনো কসমেটিক পণ্য বা পার্লার ট্রিটমেন্ট করিয়ে এ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব নয়।
তাহলে উপায়?
উপায় হচ্ছে ভেষজ পদ্ধতি। পাঠকদের জন্য আজ থাকছে এমন একটি ভেষজ পদ্ধতি, যা খুশকিসহ মাথার ত্বকের অসংখ্য সমস্যার সমাধান করে দেবে। মাথার ত্বক হবে রোগবালাইমুক্ত। বাড়তি পাওনা হিসেবে চুল হবে ঝরঝরে, সুন্দর ও প্রাণবন্ত। এতে আছে নিম, যা প্রসিদ্ধ ভেষজ গুণাবলির কারণেই।
যা লাগবে
নিম পাতা ২/৩ মুঠো
ফুটানো পানি ২ লিটার
কয়েক টুকরো রিঠা
কয়েক টুকরো শিকাকাই
প্রণালি
—রিঠা ও শিকাকাইগুলো রাতের বেলা ভিজিয়ে রেখে দিন পানিতে।
—সকালে সেই পানিই রিঠা ও শিকাকাইসহ চুলোতে দিয়ে দিন।
—১০/১৫ মিনিট ফোটানো হয়ে গেলে নিম পাতাগুলো দিয়ে দিন পানিতে।
—আরও ১০/১৫ মিনিট ফুটিয়ে নিন।
—এরপর চুলো নিভিয়ে দিয়ে ঠান্ডা করুন।
—ভালো করে ছেঁকে একটি বোতলে ভরে রাখুন।
—ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে হবে।
ব্যবহারবিধি
দু’ভাবে এই হেয়ার টনিকটি ব্যবহার করা যেতে পারে।
১) গোসল করার পর চুল ভালো করে মুছে নিন। তারপর তুলোতে হেয়ার টনিক মেখে নিয়ে ভালো করে চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে প্রয়োগ করুন। মাথার ত্বকের সম্পূর্ণ অংশে ভালোভাবে প্রয়োগ করতে হবে। এরপর শুকাতে দিন। ধুয়ে ফেলার কোনো প্রয়োজন নেই।
২) গোসল করার পর মাথা মুছে নিন। তারপর একটি মগে হেয়ার টনিক নিয়ে সেটা দিয়ে আস্তে আস্তে মাথায় ঢালুন। এমনভাবে ঢালবেন যেন চুলের গোড়ায় লাগে। ৫/৭ মিনিট রেখে তারপর চুল মুছে নিন।
চাইলে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়েও নিতে পারেন। কিন্তু তাতে কার্যকারিতা কমে যাবে।
—রোজ ব্যবহার করতে পারলে খুব ভালো। না পারলে এক দিন পর পর করুন।
—চুল নোংরা রাখবেন না। এক দিন পর পর শ্যাম্পু করুন।
—প্রতিদিন শাওয়ার নিন। চুলের গোড়ায় ভালো করে পানি ঢালুন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন