সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ ০৪:৪৭:১৭ এএম

এতিমদের সাথে বিএনপির ইফতার

রাজনীতি | শনিবার, ১৯ মে ২০১৮ | ০২:৩১:৫৪ এএম

প্রতিবছরই রমজানের শুরুতে ওলামা-মাশায়েখ ও এতিমদের নিয়ে ইফতার করতেন বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়া। কিন্তু জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৫ বছরের সাজা হওয়ায় কারাগারে রয়েছেন তিনি।সেজন্য এবার বিএনপির সিনিয়র নেতারা ওলামা-মাশায়েখ ও এতিমদের নিয়ে ইফতার করেছেন।

শুক্রবার (১৮ মে) রাজধানীর লেডিস ক্লাব মিলনায়তনে প্রথম রমজানে ওলামা-মাশায়েখ ও এতিমদের সম্মানে বিএনপির পক্ষ থেকে এই ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

প্রতিবছর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এ ইফতার মাহফিলে উপস্থিত থেকে এতিমদের সঙ্গে ইফতার করতেন। এ বছর তিনি কারাগারে বন্দি থাকায় দলের সিনিয়র নেতারা ইফতার করলেন।

ইফতার মাহফিলে দলের সিনিয়র নেতাদের মধ্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ড. আব্দুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ওলামা দলের সভাপতি হাফেজ মাওলানা আব্দুল মালেক, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শাহ মোহাম্মদ নেসারুল হক প্রমুখ।

ওলামা-মাশায়েখদের মধ্যে মাওলানা সৈয়দ কামাল উদ্দীন জাফরী, মাওলানা শাহ ওয়ালী উল্লাহ নদভী, ড. খলিলুর রহমান মাদানী, মাওলানা মাসুদ সাঈদী প্রমুখ।

ইফতারির আগে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা এবার অত্যন্ত ভারাক্রান্ত মন নিয়ে ইফতার মাহফিল করছি। প্রতিবছর প্রথম রমজানে খালেদা জিয়া এতিমদের নিয়ে ইফতার করতেন, আজ তিনি কারাগারে। আমরা আল্লাহর কাছে দোয়া করি, আল্লাহ যেন অতিদ্রুত তাকে মুক্তি দিয়ে আমাদের মাঝে ফিরিয়ে দেন।

তিনি বলেন, আমাদের ধৈর্যের সঙ্গে মোকাবেলা করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। আমরা সব দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করতে হবে।

আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের (তারেক রহমান) এখানে কথা বলার কথা ছিল, কিন্তু জুমার নামাজের কারণে পারেননি। তিনি সবাইকে রমজানুল মোবারক জানিয়ে দোয়া চেয়েছেন।

ইফতার মাহফিলে ৩টি মাদরাসার ২ শতাধিক এতিমকে ইফতারি করানো হয়।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন