শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৯:০৮:৪৩ পিএম

মেগানের সাবেক স্বামী কে, কেন বিচ্ছেদ হয়েছিল

আন্তর্জাতিক | রবিবার, ২০ মে ২০১৮ | ০৩:২২:০৬ পিএম

সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শনিবার বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন ব্রিটিশ প্রিন্স হ্যারি ও মার্কিন অভিনেত্রী মেগান মার্কেল। উইন্ডসর ক্যাসলে ব্রিটিশ রাণী ও ৬০০ অতিথির সামনে এই যুগল শপথ বিনিময়ের পর পরস্পরকে আংটি পরিয়ে দেন। হ্যারির এটি প্রথম বিয়ে হলেও এ নিয়ে দ্বিতীয়বার বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন মেগান মার্কেল। তিনি এর আগে চলচ্চিত্র প্রযোজক ট্রেভর এঙ্গেলসনকে বিয়ে করেছিলেন।

দীর্ঘদিন চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০০১ সালে জ্যামাইকার এক সমুদ্র সৈকতে ট্রেভরের গলায় মালা পরিয়ে দেন মেগান। জ্যামাইকার ওকো রিওসের কাছে একটি বিলাসবহুল রিসোর্টে বন্ধুদের নিয়ে পার্টিও দেন এই যুগল। টানা চার দিন ধরে চলে ওই পার্টি।

কে এই ট্রেভর এঙ্গেলসন
ট্রেভর রবিন উইলিয়ামসের লাইসেন্স টু ওয়েড, অল অ্যাবাউট স্টেভ, দ্য হেদারস ইত্যাদি টেলিভিশন রিমেকে কাজ করেছেন। সহকারী প্রয়োজক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু এই প্রযোজকের। রিমেম্বার মি (২০১০), আউটপোস্ট ৩৭ (২০১৪) তার দুটি বিখ্যাত চলচ্চিত্র। তিনি ১৯৭৬ সালের ২৩ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে জন্মগ্রহণ করেন।
এক নজরে হ্যারি-মেগানের বিয়ে
মেগান ও ট্রেভর ২০০৪ সালে ডেটিং শুরু করেন। ৬ বছর পর ২০১০ সালে তাদের বাগদান সম্পন্ন হয়। বাগদানের এক বছর পর ২০১১ সালের ১০ সেপ্টেম্বর জ্যামাইকার ওকো রিওসে তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।

শোনা যায়, মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছিল। তারপর শুরু হয় পার্টি; যা টানা চার দিন চলে। যা হোক, বিয়ের দুই বছর পর ২০১৩ সালের আগস্টে এই যুগলের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তারা বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে উভয়ের ‘মতবিরোধ’কে দায়ী করেন।

ট্রেভর একটি ডিভোর্স কমেডি নিয়ে কাজ করছেন। এটি মূলত ব্রিটিশ রাজ পরিবারকে ঘিরে। ধারণা করা হচ্ছে, এই কমেডিতে ট্রেভরের নিজ জীবনের অভিজ্ঞতার ছাপ থাকতে পারে। তবে এটির কেন্দ্রীয় চরিত্র হিসেবে প্রিন্স হ্যারি ও মেগানের থাকার কোনো খবর নেই।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন