বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৭:২৫:৫৮ পিএম

শেরপুরে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

জেলার খবর | শেরপুর | মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮ | ০৫:৫৬:০৭ পিএম

শেরপুরের নকলা উপজেলায় কৃষক মহিদুল হত্যা মামলায় সাইফুল ইসলাম নামে এক আসামির যাজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. মোছলেহ উদ্দিন আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত সাইফুল ইসলাম নকলা উপজেলার কৈয়াকুড়ি কান্দাপাড়া গ্রামের হলকু মিয়া ছেলে। রায়ে একই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৪ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। আর অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় সাইফুলের মা করিমন নেছা ও খালা সুফিয়া খাতুনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট ইমাম হোসেন ঠান্ডু রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলার নথির বরাত দিয়ে তিনি জানান, নকলা উপজেলার কৈয়াকুড়ি কান্দাপাড়া গ্রামের মহিদুল ইসলামের সঙ্গে প্রতিবেশী সাইফুল মিয়ার জমির সীমানা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। ২০১৩ সালের ৫ জানুয়ারি বিরোধপূর্ণ জমির একই আইলের একটি জিগার গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে উভয়পক্ষ ঝগড়ার একপর্যায়ে দা-শাবল, লোহার রড, লাঠিসোঠা নিয়ে মারপিটে জড়িয়ে পড়ে। সেসময় প্রতিপক্ষের শাবলের আঘাতে কফিল উদ্দিনের ছেলে মহিদুল ইসলাম গুরুতর আহত হন। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঘটনার ৫দিন পর আহত মহিদুল মারা যান।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা কফিল উদ্দিন বাদী হয়ে নকলা থানায় চারজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে নকলা থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শহীদুজ্জামান সাইফুল তিনজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন। ছয় সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালতের বিচারক মঙ্গলবার দুপুরে দুইজনকে বেকসুর খালাস এবং সাইফুল মিয়াকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দেন।

রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট ইমাম হোসেন ঠান্ডু সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

তবে আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত উল্লাহ তারা বলেন, এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে। আশ কারি আপিলে আমরা ন্যায় বিচার পাব।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন