মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ ০১:২০:৫৩ পিএম

‘ওরা অনেক এগিয়েছে, আমরা অনেক পিছিয়েছি’

খেলাধুলা | বুধবার, ২৩ মে ২০১৮ | ০৭:৩৩:০৩ পিএম

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ‘৮-০’ ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ জাতীয় নারী ক্রিকেট দল। ৫-০ ব্যবধানে ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর টি-টোয়েন্টিতে ৩-০ ব্যবধানে হেরেছে মেয়েরা।

সফর থেকে শূন্য হাতে মঙ্গলবার রাতে দেশে ফিরেছে রুমানা-সালমারা। জয় তো দূরের কথা, কোনো ম্যাচে ন্যূনতম প্রতিদ্বন্দ্বিতা পর্যন্ত করতে পারেনি বাংলাদেশের মেয়েরা। সফর শেষে অধিনায়ক রুমানার একটাই মন্তব্য, ‘ওরা অনেক এগিয়ে গেছে, আমরা অনেক পিছিয়ে গেছি।’ তাইতো দীর্ঘ এক মাসের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের প্রাপ্তি খুঁজে পেলেন না রুমানা।

পুরো সফরের প্রাপ্তি জানাতে গিয়ে অধিনায়ক বলেছেন,‘অনেকদিন পর ওয়ানডে খেলতে গেছি। এ বছর ৫টা খেললাম, আবার কবে পাব জানি না। সামনের এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি। ওয়ানডে নেই। প্রাপ্তি বলতে অভিজ্ঞতা বাড়ল। ওরা ভালো দল। ভালো দলের সাথে খেলতে কেমন প্রস্তুতি দরকার বা নিতে হবে, সেটা বুঝেছি।’

অতীত রেকর্ডে দুই দলের পার্থক্য অনেকটাই স্পষ্ট। ঘরের মাঠে গত বছর প্রোটিয়া মেয়েদের আতিথেয়তা দিয়েছিল বাংলাদেশ। পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে ৪-১ ব্যবধানে হেরেছিল স্বাগতিকরা। এবার ওদের মাঠে হোয়াইটওয়াশ। ভিন্ন কন্ডিশনে প্রতিপক্ষের দাপটে টিকতে পারেননি রুমানারা। অস্বীকার করেননি রুমানাও, ‘ওদের মাটিতে ওরা আসলে রাজার মতো খেলেছে। ওরা পুরোপুরিই দেখিয়ে গেছে। পেস অ্যাটাক ছিল অসাধারণ। কন্ডিশন অনেক প্রভাব ফেলেছে। এখনো আমরা আমাদের দেশের কন্ডিশন থেকে বের হতে পারিনি।’

রুমানা বাহবা দিলেন প্রোটিয়াদের ম্যাচ পরিকল্পনাতেও। প্রস্তুতি ম্যাচে অভিষেক করেছিল দুই ক্রিকেটারের। পরবর্তীতে তারা মূল ম্যাচে ভালো খেলেন। এরপর প্রথম ম্যাচে জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে একাধিক পরিবর্তন আনে। বাংলাদেশ দল যেন কোনো পরিকল্পনা করতে না পারে সেজন্য দল একাধিকবার পরিবর্তন করে প্রোটিয়ারা। তাইতো নিজেদের থেকে স্বাগতিক দলকেই বেশি সিরিয়াস বলেছেন রুমানা।

বাংলাদেশ দলের কোচ হিসেবে দুই বছর দায়িত্ব পালন করেছেন প্রাক্তন ইংলিশ অলরাউন্ডার ডেভিড চ্যাপেল। এ সফর দিয়েই তার দায়িত্ব শেষ হলো। কাতার পর্যন্ত দলের সঙ্গে এসে এরপর আলাদা হয়ে যান চ্যাপেল। এরই মধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নারীদের নতুন কোচ হিসেবে যুক্ত করেছেন ভারতের প্রাক্তন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানআনজু জেইনকে।তার সহকারী হিসেবে থাকবেন আরেক ভারতীয় দেবিকা পালশিখর। আনজু জেইন যুক্ত হলে বাংলাদেশ নারী দলের কোচিং স্টাফ হয়ে যাবে ভারতীয় নির্ভর। কারণ এরই মধ্যে কাজ করছেন দেবীকা পালশিখর ও ফিজিও আনুজা ডালভি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন