বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ ১০:২৫:২৭ পিএম

ভারতের জাতীয় দলের জন্য দু:সংবাদ

খেলাধুলা | বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮ | ০১:৪০:০৭ পিএম

আইপিএল শেষেই কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে ইংল্যান্ড যাওয়ার কথা ছিল। কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব সারের সঙ্গে তার সবকিছু পাকাপাকি হয়ে ছিল। কিন্তু বাঁধ সেধেছে ইনজুরি। ভারতের জাতীয় জন্য দু:সংবাদ।

মেরুদণ্ডের সমস্যায় ভূগছেন (স্লিপড ডিস্ক) ভারতের টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। ভারতের সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন প্রতিবেদন থেকে এমনটাই জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে কোহলি মুম্বাইর এক অর্থোপেডিক সার্জনের কাছে যান। তিনি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেন কোহলির মেরুদ-ের সমস্যায় ভূগছেন। অবশ্য এই সমস্যার জন্য তাকে অস্ত্রোপচার করাতে হবে না। তবে কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে গিয়ে যদি কোনোভাবে মেরুদণ্ডের টান খান তাহলে তাকে আরো বড় সমস্যায় পড়তে হতে পারে। সে কারণে, ডাক্তার তাকে কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে যেতে এক প্রকার নিষেধ করেছেন। যাতে করে ভারতের ইংল্যান্ড সফর তিনি মিস না করেন। কোহলিকে তিনি বিশ্রামে থাকতে বলেছেন, নির্দিষ্ট কিছু ব্যায়াম করতে বলেছেন।

তবে কোহলির ইনজুরির বিষয়ে ভারতের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রন বোর্ড কিংবা কোহলি নিজে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলেননি। কোন সমস্যা নিয়ে কোহলি ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলেন সে বিষয়টিও জানা যায়নি। কেননা, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে সবগুলো ম্যাচই খেলেছেন কোহলি। অবশ্য তার দল এবার গ্রুপপর্বের বৈতরণি পেরুতে পারেনি। তবে কোহলির পারফরম্যান্স খুব একটা খারাপ ছিল না। ১৪ ম্যাচে মাঠে নেমে তিনি ৫৩০ রান করেছেন। যেখানে তার গড় ৪৮.১৮। স্ট্রাইক রেট ১৩৯.১। ৫৩০ রান নিয়ে আইপিএলের চলতি আসরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন।

২০১৪ সালে ইংল্যান্ড সফর করেছিল ভারত। সেবার ৫ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ ৩-১ ব্যবধানে হেরেছিল সফরকারীরা। ওই সিরিজে ৫ ম্যাচে মাত্র ১৩৪ রান করেছিলেন কোহলি। সেঞ্চুরি তো দূরে থাক, একটা হাফ সেঞ্চুরিও করতে পারেননি তিনি। সর্বোচ্চ রান ছিল ৩৯। দুইবার তো গোল্ডেন ডাক মেরেছিলেন। ২০১৪ সালের ইংল্যান্ড সফরটা কোহলির মতো একজন ব্যাটসম্যানের জন্য ছিল দুঃস্বপ্নের মতো। আইপিএলে শেষে আবারো ইংল্যান্ড সফরে যাবে কোহলি বাহিনী। এই সফরে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি, তিন ম্যাচ ওয়ানডে ও পাঁচ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত। টেস্ট সিরিজ শুরু হবে ১ আগস্ট থেকে।

২০১৪ সালের মতো ২০১৮ সালের ইংল্যান্ড সফর যাবে দুঃস্বপ্নের মতো না হয় সে কারণে বিরাট কোহলি কাউন্টি ক্রিকেট খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। আইপিএল শেষ করেই ইংল্যান্ডে চলে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। প্রথম কোনো ভারতীয় ক্রিকেটা হিসেবে সারের হয়ে খেলতে সব কিছুই প্রস্তুত। কিন্তু ইনজুরি শেষ পর্যন্ত তার সব পরিকল্পনায় জল ঢেলে দেয় কিনা কে জানে?

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন