বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৮:৩৪:২৯ এএম

ঠাকুরগাঁও-২ আসনে আ.লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী অ্যাড. টুলুর গণসংযোগ

এস. এম. মনিরুজ্জামান মিলন | জেলার খবর | ঠাকুরগাঁও | সোমবার, ২৮ মে ২০১৮ | ০৫:১০:৫১ পিএম

ঠাকুরগাঁও-২ আসনটি বিগত ৩০ বছর থেকে আওয়ামী লীগকে উপহার দিয়ে আসছেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব মু. দবিরুল ইসলাম। তবে জেলার বর্তমান রাজনৈতিক হালচালে তাকে পাশ কাটিয়ে এবারে সম্ভাব্য সংসদ সদস্য প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট মোস্তাক আলম টুলু। ইতোমধ্যে জনগণের কাছে তিনি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। প্রতিদিন সাধারণ জনগণের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন এই নবীন আওয়ামী লীগ নেতা। জনগণও চাইছেন তাকে সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে।

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন, হরিপুর উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন ও রাণীশংকৈল উপজেলা সীমান্ত ঘেষা ২টি ইউনিয়ন নিয়ে ঠাকুরগাঁও-২ আসন গঠিত।

ঠাকুরগাঁও-২ আসনের সম্ভাব্য প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোস্তাক আলম টুলু। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা; ডাকসুর সাবেক সদস্য। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে তিনি এবার এ আসনে মনোনয়ন চাইবেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে অ্যাডভোকেট মোস্তাক আলম টুলু ঠাকুরগাঁও-২ আসনের প্রত্যেকটি গ্রামে গ্রামে গিয়ে ব্যাপকভাবে গণসংযোগ চালাচ্ছেন। ভোটারদের কাছে গিয়ে তিনি কুশল বিনিময় করে দোয়া ও আর্শিবাদ চাইছেন এবং বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড জনগণের মাঝে তুলে ধরে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানাচ্ছেন। পাশপাশি হোটেল-রেষ্টুরেন্ট, চায়ের দোকানসহ বিভিন্ন স্থানে চলছে তাঁর গণসংযোগ। এ নিয়ে ভোটারদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও ব্যাপক আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে।

গত এক মাসে আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট মোস্তাক আলম টুলু ঠাকুরগাঁও-২ আসনের হরিপুর উপজেলার ৩টি ইউনিয়ন ও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ২টি ইউনিয়নের প্রায় ৫০টি গ্রাম ঘুরে সাধারণ জনগণের খোঁজখবর নিয়েছেন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আতিয়াবাড়ি গ্রামের যতিশ চন্দ্র বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ঠাকুরগাঁও-২ আসনের মানুষরা একটি মহলের কাছে জিম্মি হয়ে আছে; তাই আগামী নির্বাচনে এ আসনে সাধারণ জনগণ নৌকা মার্কার নতুন মুখকে সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে চায়।

একই উপজেলার সৌলাপুকুর গ্রামের আব্দুল আলিম বলেন, এ আসনে রাস্তা-ঘাট সহ এলাকায় তেমন কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি; এতেই বোঝা যায় পকেট ভর্তি করতে তারা ব্যস্ত ছিলেন।

হরিপুর উপজেলার আটঘুরিয়া গ্রামের গৃহবধু পারুল আক্তার বলেন, নারীদের উন্নয়নে আমরা তেমন কোন ভূমিকায় দেখিনি; শুধু নারীদের উন্নয়ন নয়; পাশাপাশি এলাকার উন্নয়নও চোখে পড়েনি।

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঠাকুরগাঁও-২ আসনের সাধারণ ভোটাররা নতুন মুখকে সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

ঠাকুরগাঁও-২ আসনের সম্ভাব্য সংসদ সদস্য প্রার্থী অ্যাডভোকেট মোস্তাক আলম টুলু বলেন, এলাকায় আমি দিনরাত গণসংযোগ চালাচ্ছি। সাধারণ মানুষদের কাছেও ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। আমার দল থেকে এবার আমি মনোনয়নপত্র পেলে নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হব।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন