মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮ ০৩:০২:৫৩ এএম

টিঅ্যান্ডটি শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞা

আইন আদালত | সোমবার, ২৮ মে ২০১৮ | ০৬:০২:০০ পিএম

বাংলাদেশ টিঅ্যান্ডটি শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়ন (বি-১৮২০) কার্যক্রমে তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট।

এছাড়া টিঅ্যান্ডটি শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়ন কার্যক্রম বন্ধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না রুলে তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব, শ্রম অধিদফতরে মহাপরিচালক, পরিচালক (ট্রেড ইউনিয়ন), যুগ্ম পরিচালক (ট্রেড ইউনিয়ন), ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিটিসিএল, আইজিপি ও টিঅ্যান্ডটি শ্রমিক ইউনিয়ন কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়নের সম্পাদককে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

সোমবার এ সংক্রান্ত আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ রুল জারিসহ নিষেধাজ্ঞা জারি করে আদেশ দেন।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ। সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার গোলাম সরোয়ার পায়েল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়। রিট আবেদন করেন বিটিসিএল শ্রমিক কর্মচারী লীগের সভাপতি মো. হুমায়ন কবীর ও সাধারণ সম্পাদক মো. ইকবাল হোসেন তুহিন।

রিট আবেদনের বিষয়ে গোলাম সরোয়ার পায়েল বলেন, শ্রম অধিদফতরের পরিচালকের (ট্রেড ইউনিয়ন) সহায়তায় টিঅ্যান্ডটি শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়ন (বি-১৮২০) বিটিসিএলের অভ্যন্তরে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। কিন্তু সংগঠনটি কেবলমাত্র টিঅ্যান্ডটি বোর্ডের অধীনে কর্মরত কর্মচারীদের স্বার্থ রক্ষার্থে ট্রেড ইউনিয়ন হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়েছিল।

দেশে প্রচলিত শ্রম আইনের অধীনে সংগঠনটি কোনোভাবেই ট্রেড ইউনিয়ন হিসেবে বিটিসিএল কর্মচারীদের মাঝে আইনগতভাবে কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে বারিত।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন