বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ ০৯:০৭:২৫ পিএম

টিম বাংলাদেশ দেরাদুন যাচ্ছে মঙ্গলবার, সাকিব যাবেন ৩১ মে

খেলাধুলা | সোমবার, ২৮ মে ২০১৮ | ০৯:৪৮:০৫ পিএম

সময় সত্যিই দ্রুত বয়ে যায়। দেখতে দেখতে কেটে গেল দিন। এসে গেল আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। আগামী ৩ জুন ভারতের উত্তরখন্ডের রাজধানী দেরাদুনে শুরু হবে তিন ম্যাচের সিরিজটি। প্রস্তুতির পালা শেষ। আগামীকাল মঙ্গলবার সকালে দেরাদুনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে বাংলাদেশ দল। ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকাল দশটায় ফ্লাইট জাতীয় দলের। যেহেতু দেরাদুনে সরাসরি ফ্লাইট নেই। তাই জাতীয় দল যাবে ভেঙ্গে ভেঙ্গে, প্রথমে ঢাকা থেকে দিল্লী। এরপর দিল্লী থেকে দেরাদুনে।

এদিকে জাতীয় দল কাল সকালে ঢাকা ছাড়লেও অধিনায়ক সাকিব যাবেন দুদিন পর; ৩১ মে। ভারতের আইপিএল শেষে আজ দুপুরে মুম্বাই থেকে টাকায় ফিরে এসেছেন সাকিব।

জাতীয় দলের পরিচর্যা ও তত্ত্বাবধায়ক স্ট্যান্ডিং কমিটি, ক্রিকেট অপারেশন্সের ম্যানেজার সাব্বির খান জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন, সাকিব দেশে ফিরে দু’দিন থাকবেন। এরপর ৩১ মে গিয়ে দেরাদুন দলের সঙ্গে যোগ দেবেন।

একইভাবে তামিম ইকবালও দলের সাথে পরে মিলিত হবেন। প্রসঙ্গতঃ দেশ সেরা ওপেনার এখন ইংল্যান্ডের লন্ডনে। সেখানে আগামী ৩১মে বিশ্ব একাদশের হয়ে ক্রিকেট তীর্থ লর্ডসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রদর্শনী টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবেন তামিম। ওই ম্যাচ শেষে তামিম লন্ডন থেকে সরাসরি দেরাদুন চলে যাবেন।

যদিও ১ জুন দেরাদুনে বাংলাদেশ দলের প্রস্তুতি ম্যাচ। এখন সাকিব তার আগের দিন দেরাদুন গিয়ে গা গরমের ম্যাচ খেলবেন কি না, তা জানা যায়নি। তবে তামিমও ওই প্র্যাকটিস ম্যাচ মিস করবেন, তা বলেই দেয়া যায়।

প্রসঙ্গতঃ আগামী ৩, ৫ ও ৭ জুন আফগানদের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ টাইগারদের। তিনটি খেলাই দেরাদুনে। ওই সিরিজ শেষ করে দেশে ফিরেও তেমন বিশ্রাম মিলবে না ক্রিকেটারদের।

সামনেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। দুই ম্যাচের টেস্ট, তিন ওয়ানডে আর দুই টি-টোয়েন্টি খেলতে আগামী মাসের তৃতীয় সপ্তাহে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যাবে টিম বাংলাদেশ।

টি-টায়েন্টি র্যাংকিংয়ে আফগানরা এগিয়ে। রশিদ খান, মোহাম্মদ নবি, মোহাম্মদ শাহজাদ, মুজিব-উর রহমানের দল আফগানিস্তান র্যাংকিংয়ে ৮ নম্বরে। শ্রীলঙ্কা ৯ আর বাংলাদেশের অবস্থান ১০ নম্বরে।

তার ওপর আফগানরা সীমিত ওভারের ফরম্যাটে আক্রমনাত্মক ক্রিকেট খেলে। দলটির পেস বোলিং ও স্পিন আক্রমণও বেশ ধারালো। সময়ের সেরা লেগ স্পিনার রশিদ খান একাই একশো। এছাড়া মুজিব-উর রহমানের অদ্ভূত বোলিংশৈলিও দলটির বোলিংকে ডিপার্টমেন্টকে করেছে সমৃদ্ধ।

সব মিলিয়ে আফগানরা বাংলাদেশের জন্য শক্তিশালী চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয়ার মত দল। তাই ভাবা হচ্ছে, বাংলাদেশের জন্য সিরিজটি সহজ হবে না। বাংলাদেশ দলেরও তা মাথায় আছে। তাই তো অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের কুটনৈতিক ব্যাখ্যা, ‘হ্যাঁ, র্যাংকিংয়ে যেহেতু আফগানরা ওপরে, তাই তারাই ফেবারিট।’

একইভাবে সহ-অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ এবং ব্যাটিংয়ের অন্যতম স্তম্ভ তামিম ইকবালও বলেছেন, সিরিজটি সহজ হবে না। তবে তারা কেউই রশিদ খানকে বড় বাধা বলে মানতে নারাজ। তামিম তো বলেই দিয়েছেন, ‘রশিদ খানের চেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ অতিক্রমের রেকর্ড আছে আমাদের।’

আর অধিনায়ক সাকিব তো আইপিএল খেলে দেশে ফিরে রশিদ খান সম্পর্কে কোন কথাই বলতে নারাজ। কাজেই ধরে নেয়াই যায়, রশিদ খান আতঙ্কে ভুগতে নারাজ বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন