মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ ০৩:৪৬:২৯ এএম

রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্রাজিল ফেবারিট, আর্জেন্টিনা হিসাবের বাইরে!

খেলাধুলা | শুক্রবার, ১ জুন ২০১৮ | ১২:৫৪:৫৭ এএম

আগামী ১৪ জুন রাশিয়ায় শুরু হতে যাচ্ছে ২১তম ফিফা বিশ্বকাপ। যেখানে অংশ নেবেন বিশ্বের সেরা ফুটবলাররা। এখান থেকে শিরোপা জয় করে নিয়ে যাওয়া যে কতটা চ্যালেঞ্জর সব দলই সেটা জানেন। তবে প্রতিটি বড় টুর্নামেন্টে সব সময়ই থাকে কিছু ডার্ক হর্স। টুর্নামেন্টে ৩২টি দল অংশগ্রহণ করবে। সুতরাং কোন দল শিরোপা জিতবে সেটা ধারণা করাটা বেশ কঠিন। তবে খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত নৈপুণ্যের কারণে কখনো কখনো কোন কোন দলের ললাটে জোটে ফেবারিটের তকমা।

বড় ধরনের টুর্নামেন্টগুলোতে সব সময়ই কিছু ডার্ক হর্স থাকে যারা ঘটাতে পারে আপসেট। ফুটবল ওয়েবসাইট 'গোল ডট কম' এর দৃষ্টিতে কোন দল জিতবে ২০১৮ বিশ্বকাপ? ফুটবলের সর্বোচ্চ পুরস্কার জয়ের দাবীদার নিয়ে এবার দৃষ্টি দেয়া যাক।

২০১৮ বিশ্বকাপ জয়ে ফেবারিট:

ব্রাজিল:

বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ে ফেবারিট হিসেবে বাজির দরে জার্মানিকে পিছনে ফেলেছে পাঁচ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। দলের তারকা খেলোয়াড় নেইমারের ফিটনেস নিয়ে সন্দেহ থাকলেও দক্ষিণ আমেরিকান দলটির বাজির দর ৪/১। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে কনমেবল অঞ্চলে শীর্ষ স্থান দখল করেই বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে তিতের দলটি। বাছাই পর্বে দ্বিতীয় স্থানে থাকা উরুগুয়ের চেয়ে ১০ পয়েন্ট বেশি নিয়েই রাশিয়া এসেছে ব্রাজিল।

গ্রুপ পর্বে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ হিসেবে আছে সার্বিয়া, সুইজারল্যান্ড ও কোস্টারিকা। তিন দলই কঠোর পরিশ্রমী ও যে কোন কিছু করতে সক্ষম হওয়ায় নি:সন্দেহে ব্রাজিলের গ্রুপটি বেশ কঠিন। সুতরাং নক আউট পর্বে যেতে ব্রাজিলকে কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।

জার্মানি : গতবারের তুলনায় দ্বিতীয় সারির দল হলেও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এবং সম্প্রতি কনফেডারেশনস কাপ জয়ী জার্মানি নি:সন্দেহে বিশ্বকাপ জয়ে অন্যতম ফেবারিট। আগামী ১৫ জুলাই মস্কোতে অনুষ্ঠিতব্য ফাইনালে ট্রফি হাতে নেয়ার ক্ষেত্রে অনেকটাই জোয়াচিম লোর জার্মানির বাজির দর ৯/২। গ্রুপ পর্বে মেক্সিকো, সুইডেন এবং দক্ষিণ কোরিয়ার পর তাদেরকে নক আউট পর্ব খেলতে হবে। তবে লোর শিষ্যরা বছরের পর বছর ধারাবাহিকভাবে পারফরমেন্স করে দেখিয়ে দিয়েছেন যেকোন বড় টুর্নামেন্টের জন্য তারা প্রস্তুত।

স্পেন:

২০০৮-২০১২ পর্যন্ত বিশ্ব ফুটবলকে শাসন করা ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ী দলটি যদিও আগের অবস্থায় নেই। তবে সার্জিও রামোস, ইস্কো এবং আন্দ্রেস ইনয়েস্তার মত খেলোয়াড়রা থাকায় এখনো বিশ্বের অন্যতম আতঙ্কের দল স্পেন।
যদিও ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপে তারা গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছিল। তথাপি ২০১৮ আসর জয়ে তাদের বাজির দর ১১/২।
গ্রুপ পর্বে স্পেনের প্রতিপক্ষ হিসেবে রয়েছে পর্তুগাল, মরক্কো এবং ইরান। তবে গ্রুপের দুই দলের মধ্যে থাকার মত যথেষ্ঠ শক্তি তাদের আছে।

ফ্রান্স:
ব্রাজিল, জার্মানি এবং স্পেনের মত দশ বছর আগে প্রথম ও একবারই শিরোপা জয় করা ফ্রান্সও রাশিয়া আসর জয়ে ফেবারিটদের একটি। কোচ দিদিয়ের দেশ্যমের রয়েছে একদল মেধাবী খেলোয়াড়। পল পগবা এবং আতোয়ান গ্রিজম্যানরা থাকায় লেজ ব্লুসদের বাজির দর এত বেশি (১৩/২)

হিসেবের বাইরে যারা :

আর্জেন্টিনা

বছরের পর বছর যাবত ফুটবল পন্ডিতেরা একটা বিষয় অনুধাবন করতে পারছেন- বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে নিজকে প্রতিষ্ঠিত করতে হলে লিওনেল মেসির দরকার একটা বিশ্বকাপ শিরোপা। ২০১৪ বিশ্বকাপ ফাইনালে পরাজিত হয়েছেন বার্সেলোনা তারকা। তবে আসন্ন আসরে ১৯৮৬ বিশ্বকাপ জয়ী দলটিকে মোটেই ২০১৪ সালের অনুরুপ মনে হয়না। এমনকি বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করাই কঠিন হয়ে পড়েছিল আর্জেন্টিনার। তবে শেষ ম্যাচে মেসি ম্যাজিকে শেষ পর্যন্ত আর্থ অব দ্য গ্রেটেস্ট শো'তে আসতে অংশগ্রহণের সুযোগ পায় দলটি।

রাশিয়া বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ে আর্জেন্টিনার বাজির দর ৯/১। তবে সম্প্রতি একটি প্রীতি স্পেনের কাছে ৬-১ ব্যবধানে বিধ্বস্ত হয়েছে দলটি। যা থেকে স্পস্টই বোঝা যাচ্ছে দলটি খুব ভাল অবস্থানে নেই এবং ক্রোয়েশিয়া, আইসল্যান্ড এবং নাইজেরিয়াকে নিয়ে কঠিন গ্রুপ উত্তীর্ন হতে হবে আর্জেন্টিনাকে।

পর্তুগাল
রাশিয়া বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ে ফেবারিটের তালিকায় নেই ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল। দলটির বাজির দর ২৫/১। তবে ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো ফ্যাক্টর অস্বীকার করাটা বোকামি হবে। অসাধারন ফর্মের মধ্য দিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে মাত্রই মৌসুম শেষ করা রোনাল্ডো বাছাই পর্বে ১৫ গোল করেছেন।
আন্দ্রে সিলভা এবং হোয়াও ক্যান্সেলোর মত তরুণ এবং মেধাবীদের নিয়ে গঠিত ফার্নান্দো স্যান্তোসের দলটি পুরোপুরি প্রস্তুত। তবে তারা সকলেই আবর্তিত হবেন সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়দের একজন রোনাল্ডোকে ঘিরে এবং এটাই তাৎপর্যপূর্ণ।

বেলজিয়াম
২০১৮ বিশ্বকাপে হিসেবের বাইরের আরেক দল বেলজিয়াম। কেভিন ডি ব্রুইয়ান, এডেন হ্যাজার্ড এবয় রোমেলু লুকাকুর মত তারকারা থাকায় দলটির চলছে এখন স্বর্ন যুগ। তাদের কারণে দলটিতে এসেছে পরিপক্কতা। বেলজিয়াম যে কোন দলকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে সক্ষম হওয়া তাদের বাজির দও ১১/১।

লাল জার্সিধারী দলটি ২০১৪ বিশ্বকাপ কোয়ার্টারফাইনালে পৌঁছার পর ইউরো ২০১৬ টুর্নামেন্টেও পৌঁছেছিল শেষ আট-এ। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপে ভাল কিছু দেখানোর মত অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড় দলটিতে আছে। কাগজে কলমে শক্তিশালী গ্রুপে রয়েছে বেলজিয়াম। এ পর্বে তাদের সঙ্গী ইংল্যান্ড, পানামা, নিউনিশিয়া।

আন্ডারডগ

ইংল্যান্ড
বছরের পর বছর যাবত বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড দলকে প্রত্যাশার চাপ বহন করতে হচ্ছে। তবে একদম সাধারন কথায় ২০১৮ আসে ও তা থেকে বেড়িয়ে এসছে দলটি। তারকাগত মানের দিক থেকে বিংশ শতাব্দির 'সোনালী প্রজন্মের' চেয়ে অনেক পিছিয়ে রয়েছে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা। বিশ্বকাপ জয়ে দলটির বাজির দও ১৬/১ এবং রাশিয়ায় তারা সত্যিকারার্থেই আন্ডারডগ।
ঐতিহাসিকভাবেই দলটি সহজেই টুর্নামেন্টে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে এবং অনুশীলন ম্যাচে তারা জার্মানি, ব্রাজিল, হল্যান্ড ও ইতালির বিপক্ষে জয় পেয়েছে। তবে প্রত্যাশার ভারটা এবার কিছু কম থাকায় ভাল করতে পারে ইংল্যান্ড।

উরুগুয়ে
২০১৮ বিশ্ব্কাপে আন্ডারডগ হিসেবে বিবেচিত হওয়ার আরেকটি দল দুই বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে। দলটির বাজির দও ২৮/১। তবে প্রমাণ করেছে যে, নিজেদের সম্মানের জন্য তারা যে কোন দলকে চ্যালেঞ্জ দিতে সক্ষম। টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী আসর ১৯৩০ এবং ১৯৫০ বিশ্বকাপ জয়ী দলটি চতুর্থ স্থানে থেকে তিনটি আসর শেষ করেছে।
বাছাই পর্বে কনমেবল অঞ্চলে আর্জেন্টিনাকে পিছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত করে বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে দলটি। লুইস সুয়ারেজ এবং এডিনসন কাভানির মত বিশ্ব সেরা স্ট্রাইকাররা আছেন দলে।

ক্রোয়েশিয়া
দশ বছর আগে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে তৃতীয় হয়েছিল ক্রোয়েশিয়া। তবে তারপর থেকে দলটি নিজেদের মান ধরে রাখতে পারেনি। ২০০২, ২০০৬ এবং ২০১৪বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয়া দলটিকে এবারের বাছাইর্বে দারুণ চ্যালেঞ্জর মুখোমুখি হতে হয়েছে। প্লে অফ খেলে এবারের আসর নিশ্চিত করতে হয়েছে ক্রোয়েশিয়াকে।
রিয়াল মাদ্রিদের লুকা মড্রিচ এবং বার্সেলোনার ইভান রাকিটিচের মত খেলোয়াড় থাকায় স্বাভাবিকভাবেই বুঝা যায় অন্য জাতির চেয়ে কতটা মেধাবী ক্রোয়েশিয়া। তৎসত্ত্বেও দলটি আন্ডারডগ এবং শিরোপা জয়ে তাদের বাজির দর ৩৩/১।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন