মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০১:৫৭:৩৫ এএম

এগিয়ে কাইয়ুম, পিছিয়ে সোহেল!

রাজনীতি | সোমবার, ৪ জুন ২০১৮ | ০১:৫৮:০৬ পিএম

আংশিক কমিটি গঠনের এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের নির্দেশনা থাকলেও তা দুই বছর পর বাস্তবায়ন করেছে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি। ২০১৭ সালের এপ্রিলের মাঝামাঝি ঢাকা মহানগরকে দুই ভাগ (দক্ষিণ ও উত্তর) করে হাবিব উন নবী খান সোহেল এবং আব্দুল কাইয়ুমকে নেতৃত্বের দায়িত্ব দেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে গুলশানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে তাভেল্লা নিহত হওয়ার পর এই হত্যাকাণ্ডের তদন্তে কাইয়ুমের নামে আসার পর আর জনসমক্ষে আসেননি তিনি। তার ভাই আব্দুল মতিন এই মামলায় কারাগারে। পরোয়ানা নিয়ে পলাতক কাইয়ুমেরও বিচার চলছে।

দলীয় প্রধানের নির্দেশে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সে সময় ঢাকা দক্ষিণের ৭০ সদস্যের এবং উত্তরের ৬৪ সদস্যের এই আংশিক কমিটি অনুমোদন করেন।

তারপর রোববার রাতে ঢাকা মহানগর বিএনপি উত্তরের পক্ষ থেকে দফতর সম্পাদক এবিএমএ রাজ্জাক কর্তৃক গণমাধ্যমে এক বিজ্ঞপ্তিতে পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়। তবে এখনও খবর নেই দক্ষিণের কমিটির।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় ঢাকা মহানগর (উত্তর) বিএনপির সভাপতি এম.এ কাইয়ুম ও সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান শনিবার ২৫টি থানায় ১২১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ থানা কমিটি ও ৫৮টি ওয়ার্ডে ৭১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ ওয়ার্ড কমিটি অনুমোদন করেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, প্রত্যেক থানা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদাধিকার বলে ঢাকা মহানগর কমিটির সহ-সভাপতি ও যুগ্ম সম্পাদকের মর্যাদা লাভ করবেন। একইভাবে ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদাধিকার বলে থানা কমিটির সহ-সভাপতি ও যুগ্ম সম্পাদকের মর্যাদা লাভ করবেন।

থানা কমিটির সভাপতি/ সাধারণ সম্পাদক হলেন যারা-

রূপনগর থানা : সভাপতি মো. আব্দুল আউয়াল, সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জি. মোহাম্মদ মজিবুল হক।

গুলশান থানা : সভাপতি মো. ফারুক হোসাইন ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক মো. দ্বীন ইসলাম।

বনানী থানা : সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান বাচ্চু।

ক্যান্টনমেন্ট থানা : সভাপতি প্রিন্সিপাল মো. লিয়াকত আলী, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুর রশিদ বাবুল।

রামপুরা থানা : সভাপতি মো. মোমিন উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম ভূইয়া।

শাহ্আলী থানা : সভাপতি এসএম কায়সার পাপ্পু, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির রওশন।

তুরাগ থানা : সভাপতি আলহাজ মো. আমানউল্লাহ ভূইয়া (মেম্বার), সাধারণ সম্পাদক, মো. হারুন অর রশিদ।

মিরপুর থানা : সভাপতি আবুল হোসেন আব্দুল, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ ওয়াজউদ্দিন মিয়া,

বাড্ডা থানা : সভাপতি মো. তাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের বাবু।

দারুস সালাম থানা : সভাপতি হাজী আব্দুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আরিফ মৃধা।

শেরে বাংলা নগর থানা : সভাপতি মো. শাহ আলম), সাধারণ সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম সিরাজ।

ভাটারা থানা : সভাপতি-কাজী নুরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক-এস.এম হুমায়ুন কবির।

ভাষানটেক থানা : সভাপতি-আলহাজ কাজী গোলাম কিবরিয়া মাখন, সাধারণ সম্পাদক খন্দাকার ইব্রাহিম খলিল।

খিলক্ষেত থানা : সভাপতি হাজী এস.এম ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক –মো. সোহরাব খান স্বপন।

পল্লবী থানা : সভাপতি- আলহাজ মো. সাজ্জাদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক- বুলবুল আহম্মেদ মল্লিক।

উত্তরখান থানা : সভাপতি আহসান হাবিব আহসান, সাধারণ সম্পাদক-জাহাঙ্গীর আলম বেপারী।

বিমানবন্দর থানা : সভাপতি-জুলহাস পারভেজ মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক-মনির হোসেন ভূইয়া।

আদাবর থানা : সভাপতি অ্যাড. আক্তারুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন।

দক্ষিণখান থানা : সভাপতি-সাহাবউদ্দিন সাগর, সাধারণ সম্পাদক- আলী আকবর আলী।

উত্তরা পূর্ব থানা : সভাপতি মো. আব্দুস সালাম সরকার, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. এফ. ইসলাম চন্দন।

তেজগাঁও থানা : সভাপতি- মো: লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক- মোহাম্মদ আলী।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা : সভাপতি-রুহুল আমীন ভূইয়া জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক-আইনুল ইসলাম চঞ্চল।

মোহাম্মদপুর থানা : সভাপতি ওসমান গণি শাহজাহান, সাধারণ সম্পাদক মো. এনায়েতুল হাফিজ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন