বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ ০৮:৫৮:১২ এএম

কুষ্টিয়ার মহাসড়কে মহাদুর্ভোগ

রোকনুজ্জামান | জেলার খবর | কুষ্টিয়া | বুধবার, ৬ জুন ২০১৮ | ০৩:২৮:৩২ পিএম

কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী, কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কে ধুলার কারণে দিনের বেলায় অন্ধকার। প্রতিদিন ধুলার মধ্য মহাসড়কে ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলছে। এতে চলাচলকারী যানবাহন ও যাত্রীদের পড়তে হচ্ছে চরম বিপাকে।

এছাড়া প্রতিনিয়তই সড়কে যানবাহন বিকল হওয়াসহ ঘটছে দুর্ঘটনা। মহাসড়কের আশপাশের ঘর-বাড়ি, দোকান আর গাছপালা এখন ধুলোর দখলে। চলাচলের সময় ধুলায় সামনের অংশ কিছুই দেখা যায় না এমনকি নিঃশ্বাস নিতেও কষ্ট হয় চালক ও যাত্রীদের। এই দুটি মহাসড়ক জেলার মানুষগুলোতে অতিষ্ঠ করে তুলেছে। কুষ্টিয়া (সওজ) সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৪৩ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারে গত জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে দুটি প্যাকেজে আলাদা আলাদাভাবে দরপত্র আহ্বান করা হয়।

কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের ২৪ কিলোমিটার কাজে প্রায় ১৯ কোটি ৭০ লাখ টাকা। আর কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কের প্রায় ১৮ কিলোমিটারের জন্য প্রায় ২৩ কোটি ৪৫ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়। দেশের উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের ৩২ জেলায় সরাসরি সড়ক যোগাযোগের একমাত্র পথ এই দুটি মহাসড়ক।

এই মহাসড়কে প্রতিদিন ১১ হাজারেও বেশি যান চলাচল করে। এ কারণে দুই বঙ্গের মানুষের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দুইটি। সড়কে ধুলাবালির আর খানাখন্দের কারণে দুর্ভোগের শেষ নেই সাধারণ যাত্রীদের। সড়কে চলাচলের জন্য বেশি ভাড়া গুণতে হচ্ছে যাত্রীদের। এক যাত্রী আক্ষেপ করে বলেন, `রাস্তার কথা বলে আর কি লাভ । আমাদের ভোগান্তি আমাদেরই পোহাতে হবে।

ধুলাবালিতে রাস্তায় চলা দায় হয়ে পড়েছে ভাই। একটু বৃষ্টি হলে তো হাঁটু পানি জমে আবার দ্বিগুণ থেকে তিনগুন ভাড়া দিতে হয়। এক চালক জানান, প্রায় দিনই গ্যারেজে নিয়ে যেতে হচ্ছে মেরামত করার জন্য গাড়ী। চলাচলের জন্য সময় অনেক বেশি লাগছে। কিছু কাজ শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। আগামী জুন মাসের মধ্যে কিছুটা সংস্কার হবে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজের) কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম জানান, কুষ্টিয়ার সড়কের উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রয়েছে।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে খুব শিগগিরই কাজ শেষ করতে পারবো। কাজ শেষ হলে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ কমবে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজের) অধিনে কুষ্টিয়ার চৌড়হাস থেকে মজমপুর শহর হয়ে ত্রিমোনী পর্যন্ত রা¯তার কাজ চলছে।

আশা করছি জুনের কয়েকদিনের মধ্যেই কাজ শেষ করা সম্ভব হবে।এছাড়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বটতৈল এলাকা পর্যন্ত সংস্কার কাজ ইতোমধ্যেই কিছুটা শেষ করেছি, আগামী জুন মাসের মধ্যে কুষ্টিয়া- ঈশ্বরদী মহাসড়কের সংস্কার কাজ কিছুটা শেষ করা সম্ভব হবে নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম জানান।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন