বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ ০৬:৫৭:১০ এএম

বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে : রিজভী (ভিডিও)

রাজনীতি | মঙ্গলবার, ২৬ জুন ২০১৮ | ০৫:৫৮:০১ পিএম

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ধানের শীষের এজেন্টদেরকে ভোটকেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া এবং সেখানে বিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আজ মঙ্গলবার সকালে নয়া পল্টনে দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে আমরা এ পর্যন্ত যতো অনিয়ম, গ্রেফতার ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সংবাদ পেয়েছি তা ধানের শীষের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট মো: সোহরাব উদ্দিন রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

তিনি জানান পুলিশ বিভিন্ন কেন্দ্রে গিয়ে বলছে গণমাধ্যমকে কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়া হবে না। গণগ্রেফতার, কেন্দ্র দখল ও ধানের শীষ প্রতীকের এজেন্ট বের করে দিয়ে চলছে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন। কেন্দ্রে যাওয়ার পথে ডিবি পুলিশ ধানের শীষের এজেন্ট ও কেন্দ্র কমিটির সদস্যদের গণহারে গ্রেফতার করছে। সকাল ৬টা থেকেই শুরু হয় পুলিশের এই গণগ্রেফতার। গতকাল দিবাগত রাত ৮টায় ২ নং ওয়ার্ড কাশিমপুর ইউনিয়নের পানি শাইল এলাকায় সাভার পৌরসভার আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র আব্দুল গণি ২ শতাধিক বহিরাগত সন্ত্রাসী নিয়ে এসে সেখানে অবস্থান নিয়েছে। মুন্সিপাড়া ন্যাশনাল প্রিন্টিং প্রেসে সারারাত ব্যালট পেপার ছাপিয়ে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা সেগুলো নিয়ে বিভিন্ন কেন্দ্রে গিয়েছে।

নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের চিত্র তুলে ধরে রিজভী বলেন, গতকাল ১১ নং ওয়ার্ড খোলাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র কোনাবাড়ী থেকে রফিকুজ্জামান, কাশিমপুর ইউনিয়ন ৩ নং ওয়ার্ড হাতিমারা স্কুল কেন্দ্র কাশিমপুর ইউনিয়ন যুবদল সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী, গত রাত সাড়ে ৮টায় ৪৪ নং ওয়ার্ড নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক আলাউদ্দিন খান, বিএনপি নেতা স্বপন, মনির হোসেন, ২৪ নং ওয়ার্ডর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক আবদুল মোতালিবকে গত রাতে ডিবি পুলিশ আওয়ামী সন্ত্রাসীদের নিয়ে ৪১ নং ওয়ার্ডে ঢুকে তল¬াশীর নামে ব্যাপক তান্ডব চালিয়েছে এবং ১ জনকে গ্রেফতার করেছে।

তিনি বলেন, আজ গ্রেফতার করা হয়েছে শ্রমিকদলের জেলা দফতর সম্পদক বজলুর রহমান বাদল, বালু চাকুলী ভোট কেন্দ্রের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মোঃ ফজলুকে। ৪৯ নম্বর ওয়ার্ড আঞ্জুমান হেদায়েতুল উম্মত কেন্দ্র এজেন্ট হাবীবুর রহমান, ৪৯ নম্বর ওয়ার্ড টিডিএইচ সরকারি প্রাথমিত বিদ্যালয় কেন্দ্রের এজেন্ট ফারুক, ৩১ নং ওয়ার্ড ধীরাশ্রম জি.কে আদর্শ উচ্চ বিদ্যলয় কেন্দ্র এজেন্ট সেলিম রেজা, বিএনপি নেতা মানিক, ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড সাহারা খাতুন কিন্টারগার্টেন কেন্দ্রের এজেন্ট মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলমকে, ৫৫ নম্বর ওয়ার্ড শ্রমকল্যাণ কেন্দ্র থেকে সাবেক কমিশনার শরিফ মিয়াকে, ৩৪ নং ওয়ার্ড শরিফপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে মনির হোসেন মোতাহার, ৩৬ নং ওয়ার্ডের গাছা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ধানের শীষের এজেন্ট গাজীউল হক ও মামুনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রিজভী বলেন, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড বনমালা এলাকা থেকে বিএনপি কর্মী জাকির, রাজন, টঙ্গী থানা ছাত্রদল সহসভাপতি শাহাব উদ্দিনকে গ্রেফতার করে এবং ধূমকেতু স্কুল কেন্দ্রের এজেন্ট ডা. আব্দুল হামিদকে কেন্দ্রের ভেতর থেকে ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। ৫৬ নং ওয়ার্ড নং ওয়ার্ড আরিচপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র কমিটির সদস্য কাজী শাহীনকে গ্রেফতার করেছে। স্থানীয় সংসদ সদস্যের বাড়ির কেন্দ্র নোয়াগাঁও এম.এ মজিদ মিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ঢুকার সময় এজেন্ট আলমগীর হোসেনকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় ডিবি পুলিশ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন