বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৬:৫০:০৩ এএম

মাত্র চার ঘণ্টার ব্যবধানে দুই লিজেন্ডের বিদায়

খেলাধুলা | রবিবার, ১ জুলাই ২০১৮ | ১১:০৯:৫২ এএম

ফ্রান্সের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে লিওনেল মেসির বিদায়ের কয়েক ঘণ্টা পরই বিশ্বকাপ মিশন শেষ হলো ফুটবল বিশ্বের আরেক মহাতারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর। একই দিনে দুই লিজেন্ডের বিদায়। সময়ের ব্যবধান মাত্র চার ঘণ্টা। কাজানে ফ্রান্সের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার লিওনেল মেসি আর সোচিতে উরুগুয়ের বিপক্ষে হেরে বিদায় নিয়েছেন পর্তুগালের ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ক্লাব ফুটবলের দুই মহারথীর বিদায়ে মন ভেঙেছে ভক্তকুলের।

এডিসন কাভানির জোড়া গোলে দ্বিতীয় রাউন্ডে শনিবারের দ্বিতীয় ম্যাচে পর্তুগালকে ২-১ গোলে হারিয়েছে উরুগুয়ে। এর ফলে লুইস সুয়ারেজ, এডিসন কাভানিরা পৌছে গেল বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে। সেখানে তারা আগামী শুক্রবার মোকাবেলা করবে ফ্রান্সকে।

ইরানের বিরুদ্বে ম্যাচের একাদশে তিনটি পরিবর্তন নিয়ে এদিন মাঠে নামে পর্তুগাল। পর্তুগাল দল তাকিয়ে ছিল রোনালদোর দিকে। গ্রুপপর্বে হ্যাটট্রিকসহ চার গোল করা রোনালদো ছিল জ্বলে উঠার অপেক্ষায়। বিশ্বকাপ ও ইউরো মিলে ৩৮তম ম্যাচ খেলতে নামলেন তিনি। এমন কীর্তি আছে কেবল বাস্তিয়ান শোয়েনস্টেইগারের। তিনিও দুই আসর মিলে ৩৮ ম্যাচ খেলেছেন। এমন ম্যাচকে স্মরণীয় করে রাখতে গোলের অপেক্ষায় ছিলেন রিয়াল মাদ্রিদ তারকা। কিন্তু শত চেষ্টা করেও উরুগুয়ের রক্ষণভাগের দৃঢ়তায় কোনো গোলের দেখা পাননি রোনালদো।

এই ম্যাচে শুরুতেই গোল করে এগিয়ে যায় লাতিন আমেরিকার দলটি। মাত্র ৭ মিনিটে উরুগুয়েকে লিড এনে দেন স্ট্রাইকার এডিসন কাভানি। পর্তুগালের ডি বক্সের বাইরে বল পেয়ে ডানদিকে লুইস সুয়ারেজকে ভলিতে বল দেন কাভানি। এরপর দৌড়ে পর্তুগালের বক্সে প্রবেশ করেন। সুয়ারেজ নিখুঁত করলে হেডে জালে জড়ান কাভানি।

গোল খাওয়ার পর আক্রমণের ধার বাড়ে পর্তুগালের। তবে উরুগুয়ের ডিফেন্স তাদের কোন সুযোগ দেয়নি প্রথমার্ধে। উরুগুয়েই সুযোগ পেলেই কাউন্টার অ্যাটাকে কাঁপন ধরিয়েছে পর্তুগালের ডিফেন্সে। দ্বিতীয়ার্ধের ১০ মিনিটে পেপের হেডে সমতায় ফেরে পর্তুগাল। শর্ট কর্নার থেকে পাওয়া বলে রাফায়েল গুরেইরোর ক্রসে লাফিয়ে উঠে হেড করেন পর্তুগালের সেন্টার ব্যাক পেপে। তবে সমতায় ফিরেও বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারে পর্তুগিজরা।

৬২ মিনিটে আবার উরুগুয়েকে লিড এনে দেন কাভানি। কাউন্টার অ্যাটক থেকে গোল পায় দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। মধ্যমাঠের নিচ থেকে মুসলেরার লম্বা পাস আসে বেনতাঙ্কুর কাছে। ডান প্রান্ত দিয়ে বল নিয়ে পর্তুগালের ডি-বক্সের দিকে দৌড় দেন বেনতাঙ্কুর। এর মধ্যে বাম প্রান্তে আগুয়ান কাভানিকে দেখতে পেয়ে তার উদ্দেশ্যে পাস দেন।

কাভানি তিনি চলন্ত বলেই বাম পায়ে কোনাকুনি শটে বল পাঠান জালে। কিপার প্যাট্রিসিও ঝাঁপিয়ে পড়েও শেষ রক্ষা করতে পারেননি (২-১)।
শেষ সময়ে বেশ কিছু আক্রমণ করেও আর গোল শোধ করতে পারেনি পর্তুগাল। এই ম্যাচে পরাজয়ের ফলে আর্জেন্টাইন সুপারস্টার মেসির পর বিশ্বকাপ থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম দিনেই বিদায় হলো ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন