বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮ ১২:৪১:৩৫ এএম

যে অভিযোগের কারণে গ্রেফতার হলেন রাশেদ

শিক্ষাঙ্গন | রবিবার, ১ জুলাই ২০১৮ | ০৬:৩১:০৯ পিএম

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের সমন্বয়কারী মো. রাশেদ খানের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা করেছেন ছাত্রলীগের এক নেতা।

রোববার (১ জুলাই) সকালে রাজধানীর শাহবাগ থানায় মামলটি করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক আল নাহিয়ান খান জয়। ঢাকা মহানগর হাকিম আমিনুল হক মামলাটি আমলে নিয়ে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ২৯ জুলাই দিন ধার্য করেন।

'মনে হচ্ছে তার বাপের দেশ'
রাশেদের বিরুদ্ধে মামলা করা ছাত্রলীগ নেতা আল নাহিয়ান খান জয় দাবি করেছেন, এই ভিডিও বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে কটূক্তি করা হয়েছে। তবে রাশেদ কারও নাম উল্লেখ করেননি।

কোটা আন্দোলনের নেতা বলেন, ‘আমরা তো কোনো রাজনৈতিক দল নই। আমাদের সাথে কিসের ষড়যন্ত্র, কিসের রাজনীতি। রাজনীতি করবেন আপনি যাদের সাথে করার, যাদের সাথে রাজনীতি করার ভালো তাদের সাথে করবেন। ছাত্র সমাজ তো রাজনীতি করতে আসেনি।’

‘মনে হচ্ছে তার বাপের দেশ। সে একাই দেশের মালিক। ইচ্ছামতো যা ইচ্ছা বলবে, আর আমরা কোনো কথা বলতে পারব না।’

'আবর্জনায় ভর্তি’ প্রশাসনের দরকার নেই'
রাশেদের দাবি প্রশাসন আবর্জনা দিয়ে ভর্তি করে রাখা হয়েছে। কারণ, সেখানে মেধাবীদেরকে সুযোগ দেয়া হয় না। আর বাংলাদেশের প্রশাসন সব থেকে নিকৃষ্ট, জঘন্য।
বাংলাদেশে এ রকম ‘নির্লজ্জ, বেহায়া, এই রকম অদক্ষ প্রশাসনের’ কোনো দরকার নাই বলেও মনে করেন রাশেদ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন