শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮ ০৭:০৭:০৩ এএম

পরকিয়ায় বাধাঁ দেয়ায় স্ত্রীকে আগুন দিয়ে হত্যা,স্বামী আটক

জেলার খবর | বরগুনা | রবিবার, ১ জুলাই ২০১৮ | ০৭:০৭:২৭ পিএম

বরগুনায় স্বামীর পরকিয়ায় বাধাঁ দেয়ায় নাসরিন নামের এক গৃহবধুর গায়ে কেরোশিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। স্বামীর পরকিয়া নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে উভয়ের মধ্যে বিবাদ চলছিল।

এরই জেরে গত রোববার ২ (জুলাই) রাতে নাসরিনের গায়ে কেরোশিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় স্বামী মহসিন। এক সপ্তাহ চিকিৎসাধীন থাকার পর শনিবার সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বার্ন ইউনিটে তাঁর মৃত্যু হয়। বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের ছোনবুনিয়া গ্রামে গত রবিবার (২৪ জুন) গায়ে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নাসরিনের স্বামী ঘাতক মহসীনকে আটক করেছেপুলিশ ।

নাসরিরেন বাবা ও মামলার বাদী শাহআলম জানান, নাসরিনের সাথে একই এলাকার প্রতিবেশী ইউসুফ মৃধার ছেলে মহসিনের সাথে বিয়ে দেন। ১০ বছরের সুখের সংসারে এই দম্পতির দুটি সন্তান জন্ম নেয়। বড় ছেলে তামিমের বয়স ৬ বছর, ছোট ছেলে রামিম মাত্র তিন মাস বয়সের শিশু। সম্প্রতি মহসিন পরকীয়ায় জড়িয়ে যাওয়ায় সংসারে অশান্তি দেখা দেয়। গত তিনমাস ধরে নাসরিনকে প্রায়ই মারধর করতো মহসিন। গত রোববার রাতে মহসিন বাড়িতে ফিরলে মুঠোফানে কথা বলা নিয়ে স্ত্রী নাসরিনের সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে নাসরিনকে মারধর করে গায়ে কেরোশিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ডাক চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে দগ্ধ অবস্থায় তাঁেক প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপতাল ভর্তি করে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ ও সবশেষ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করে। শনিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানেই নাসরিনের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নাসরিনের বাবা শাহআলম বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামী করে বরগুনা থানায় মামলা দায়ের করা হয়ছে। আসামীরা হচ্ছে ১। মো. মহাসীন, ২। মোসা, হামিদা, ৩। মো. মামুন, ৪। মো. ইসমাইল ও ৫। মোসা, হোসনেয়ারা।

বরগুনা পুলিশ সুপার বিজয় বসাক, বিপিএম,পিপিএম জানান , নাসরিনের বাবা শাহ আলম মামলা দায়ের করার পরপরই নাসরিনের স্বামী মহসিনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া ও ভিক্টিমের পরিবারকে আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দেন।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন