বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ ০৭:৫৭:৩৩ পিএম

এবার তৈরি হচ্ছে ‘ধোনি ২’ সিনেমা

খেলাধুলা | শুক্রবার, ৬ জুলাই ২০১৮ | ০৮:০৮:২০ পিএম

এই প্রথম কোনও ভারতীয় বায়োপিকের সিকোয়েল তৈরি হবে। ছবি নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে। ছবির প্রধান আকর্ষণ ভারতীয় তারকা অধিনায়ক ধোনির পারিবারিক জীবন।
বলিউডে বায়োপিকের ব্যবসা রমরমা চলছে গত কয়েক বছর ধরেই। ‘সঞ্জু’ রিলিজের সঙ্গে সঙ্গেই প্রায় দুশো কোটি রোজগার করে ফেলেছে সঞ্জয় দত্তের বায়োপিক। এবার সামনে আর একটা বায়োপিকের খবর। কেবল বায়োপিক নয়, বায়োপিকের সিকোয়েল। ‘এম এস ধোনিঃ দ্য আনটোল্ড স্টোরি’-র সাফল্যের পরে স্বাভাবিক ভাবেই এই খবরে রীতিমতো সাড়া পড়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত, এই প্রথম কোনও ভারতীয় বায়োপিকের সিকোয়েল তৈরি হবে।

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের অনবদ্য অভিনয়ে সকলে মুগ্ধ হয়েছিলেন। ছবিটি শেষ হয়েছিল ২০১১ সালে ভারতের বিশ্বজয় দিয়ে। সিকোয়েলে দেখানো হবে ধোনির কেরিয়ারের পরের পর্ব। দেখা যাক ধোনি-ভক্তরা তাঁদের আপনজন মাহির জীবনের কোন কোন অধ্যায় দেখলে খুশি হবেন এই সিকোয়েলে। একটি সর্বভারতীয় ক্রীড়া বিষয়ক ওয়েবসাইটের মতে এই ৬টি বিষয় পেলে ভক্তরা খুব খুশি হবেন।
ধোনি-কন্যার জিভার জন্ম হতে পারে সিকোয়েলের অন্যতম আকর্ষণ। ২০১৫ বিশ্বকাপের ঠিক আগে সাক্ষী ও ধোনির কোল আলো করে এসেছিল জিভা। চেন্নাই সুপার কিংস-এর সাসপেনশন এবং ফিরে আসা। তার পর নতুন করে আইপিএল খেতাব জয় করা। ধোনির কেরিয়ারে নিঃসন্দেহে একটি দারুণ সাফল্য হিসেবে এটি চিহ্নিত হবে। এটিও থাকতে পারে সিকোয়েলে।

কেবল সাফল্য নয়, থাকা উচিত ধোনির ক্রিকেট জীবনের অন্যতম খারাপ সময়টিও। বিশ্বকাপ জেতার পরেই ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৪-০ হারের পরে রীতিমতো সমালোচনায় বিদ্ধ হতে হয়েছিল ওই দুই সিরিজের অধিনায়ক ধোনিকে। সেই সময়ে মাহির সংগ্রামের কাহিনি এই সিকোয়েলের খুবই গুরুত্বপূর্ণ এক অধ্যায় হয়ে উঠতে পারে।

২০১৪-১৫ সালের অজি সফরের মাঝপথে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে নেন ধোনি। ২০১৩ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতে ধোনি বাহিনী। সেই সোনালি সাফল্যের খতিয়ান থাকতে পারে ছবিতে। এর সঙ্গে থাকা উচিত তরুণদের পাশে দাঁড়ানো অভিজ্ঞ ধোনির কথাও। কীভাবে তিনি দলের নতুনদের উৎসাহ দেন, সেটাও হতে পারে ছবির প্রতিপাদ্য।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন