বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ ০৩:৫৫:৩৮ পিএম

আমরা সবদিক দিয়ে পরাজিত হয়েছি : কুতিনহো

খেলাধুলা | শনিবার, ৭ জুলাই ২০১৮ | ১১:৫৪:৫২ পিএম

বেলজিয়ামের বিপক্ষে পরাজয় মনে হয় নিজেদের মনেই অনুতাপের জন্ম দিয়েছে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারদের মনে। এই ফুটবলারদের মধ্যে প্রথমেই বেলজিয়ামের বিপক্ষে পরাজয় নিয়ে কথা বলতে মুখ খুলেছেন ফিলিপে কুতিনহো। বেলজিয়ামের সাথে মুখোমুখি হওয়ার পুর্বে পাচঁবারের বিশ্বকাপ জয়ী সেলেকাওরাই ছিল ফেভারিটের আসনে।

অনেকেই ভেবেছিলেন নেইমার এবং তিতের দলের সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয়াটা সময়ের ব্যাপার মাত্র। কিন্তু তাদের এই আশা যেন বুমেরাং হয়ে শেলের মতো তাদের হৃদয়ে গিয়ে লাগল। অনেকেরই ধারণা ছিল না বেলজিয়ামের দলটিও ছিল সেলেকাওদের মতোই তারকায় ভরা। শেষ আটের লড়াইটি ছিল তাই তারকাদের লড়াই। ইউরোপ এবং ল্যাতিন আমেরিকার তারকাদের এই লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত ইউরোপ জয় পেল এবং রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে ল্যাতিন আমেরিকা বিদায় হয়ে গেল।

তাদের এই পরাজয় এবং সমালোচকদের সমালোচনা মেনে নিতে পুরোপুরিভাবে প্রস্তুত ব্রাজিলের তারকা কুতিনহো যিনি তাদের সেরা তারকা নেইমারের আড়ালে থেকে রাশিয়া বিশ্বকাপে সেলেকাওদের হয়ে সবটুকু আলো কেড়ে নিয়েছেন। কিন্তু নিজেদেরকে আর শেষ রক্ষা করতে পারেননি। লুকাকু, ডি ব্রুইনা, ফেলাইনি এবং কোম্পানিদের বেলজিয়ামের নিকট হেরে বিশ্বকাপ শেষ করেছেন। যদিও শেষ মুহুর্তে তিনি একটি সুবর্ন সুযোগ পেয়েছিলেন কিন্তু অনেকটা ফাকা পোষ্টে এলোমেলো শট নিয়ে বল বাইরে পাঠিয়ে দেন।

ফারনান্দদিনহোর আত্মঘাতী গোল এবং কেভিন ডি ব্রুইনার অসাধারণ এক কাউন্টার এ্যাটাকিং গোলে তারা নেইমারের দলের বিপক্ষে জয় পায় ২-১ গোলে। ব্রাজিলের হয়ে বদলি রেনাটো অগাস্টো একটি গোল করে ব্যাবধান কমিয়েছিলেন। দারুন এবং অসাধারণ খেলার পরও এবং বেলজিয়ামের গোলমুখে অনেক শট নেওয়ার পরও কুতিনহোরা বেলজিয়ামের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত সমতা নিয়ে আসতে পারেনি এবং মাথা নিচু করে তাদের মাঠ ছেড়ে যেতে হয়।

কুতিনহো বলেন, ‘ আমরা ফাইনাল খেলতে চেয়েছিলাম। আমরা আমাদের সেরাটাই দিয়েছি। দলের সবাই তাদের সেরা চেষ্টাটাই করেছে। বার্সেলোনার প্লেমেকার কুতিনহো আরো বলেন, ‘ আমাদের খারাপ লাগছে। সকল ব্রাজিলীয়ানদের মতোই আমরাও জিততে চেয়েছিলাম কিন্তু আমরা পারিনি।’ ব্রাজিলের হয়ে ২০১৮ বিশ্বকাপই হতে পারে অনেক সেলেকাও ফুটবলারের শেষ বিশ্বকাপ কারণ ২৩ জনের স্কোয়াডের নয়জনের বয়সই এখন ত্রিশের কোটায়।

কুতিনহো বলেন, আমি এখনই বিদায় বলতে চাই না কারণ আমার বয়স মাত্র ২৬ এবং আমি ব্রাজিলের হয়ে আরো একটি বিশ্বকাপ খেলতে চাই। ৩৩ বছর বয়স্ক মিরান্ডা বলেন,‘ আমি আমার ভবিষ্যত নিয়ে কিছু বলতে চাই না। কারণ এই স্কোয়াডের সকল ফুটবলারই একটি জেনারেশনের অংশ। দেখা যাক সামনে কি হয়।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন