মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ ০৯:১৩:১৯ এএম

অভাব থেকে মুক্তি পাওয়ার দোয়া

ধর্ম | সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ | ১০:৩৭:০০ এএম

কথায় আছে, অভাবে স্বভাব নষ্ট। কিন্তু অভাব হলেই যে স্বভাব নষ্ট করতে হবে, তা আমাদের ইসলাম ধর্মে কখনই বলে নাই। বরং অনেক অভাব অনটনেও ধৈর্য রেখে নিজেকে সামলে নিতে হবে।

যত প্রতিকূল পরিবেশই আসুক খারাপ কোন কিছুতেই যাওয়া যাবে না। এছাড়া, অভাব আল্লাহ আমাদের পরীক্ষা করার জন্যই দিয়ে থাকে। অভাব-অনটনে আমরা কতটুকু আল্লাহকে মনে করছে, সেটাই তিনি দেখতে চান। তাই যত অভাব-অনটন আসুক না কেন, আল্লাহকে স্মরণ করতে হবে।

আল্লাহ তাআলা বান্দাকে তার সুন্দর সুন্দর নামের জিকির বা আমল করার কথা বলেছেন। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হাদিসে আলাদা আলাদাভাবে এ নামের জিকিরের আমল ঘোষণা করেছেন। আল্লাহ তাআলার গুণবাচক নামসমূহের মধ্যে (اَلرَّافِعُ) ‘আর-রাফিয়ু’ একটি। যার অর্থ হলো- ‘মুমিনদের মর্যাদা উঁচুকারী।’

সংক্ষেপে এ গুণবাচক নাম (اَلرَّافِعُ) ‘আর-রাফিয়ু’-এর জিকিরের আমল ও ফজিলত তুলে ধরা হলো-

উচ্চারণ : ‘আর-রাফিয়ু’
অর্থ : ‘মুমিনদের মর্যাদা উঁচুকারী।’

আল্লাহর ‍গুণবাচক নাম (اَلْخَافِضُ)-এর আমল

ফজিলত
#যে ব্যক্তি আল্লাহ তাআলার এ পবিত্র গুণবাচক নামের জিকির মধ্যরাত বা রাতের দ্বিপ্রহরের পর ১০০ বার পাঠ করে, মহান আল্লাহ তাকে তার সৃষ্টির মধ্যে মনোনীত ও অর্থশালী করেন এবং অন্যের মুক্ষাপেক্ষীতা থেকে মুক্ত রাখেন।

#যে ব্যক্তি অত্যাচারীর জুলুম অত্যাচার থেকে এ পবিত্র গুণবাচক (اَلرَّافِعُ) ‘আর-রাফিয়ু’ নামটি প্রতিদিন ১০০বার পাঠ করে।

# অন্যত্র এসেছে, ‘যে ব্যক্তি এ পবিত্র গুণবাচক (اَلرَّافِعُ) ‘আর-রাফিয়ু’ নামের জিকির প্রতিদিন ঘুমানোর সময় ১০০ বার করবে, ঐ ব্যক্তি সকল বিপদাপদ থেকে হিফাজত থাকবে। আর যে ব্যক্তি ৬০০ বার পড়লে অত্যাচার থাককে মুক্তি লাভ করবে।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন