মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ০৯:১৮:২৭ এএম

শিশু বাঁচাতে গিয়ে সাংবাদিক রবিউল গুরুতর আহত

আলমগীর হোসেন | জেলার খবর | লক্ষীপুর | সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০১৬ | ১০:৫২:৫৫ এএম


৬ বছরের এক শিশু কিশোরীকে বাচাঁতে গিয়ে সাংবাদিক রবিউল ইসলম গুরতর জখম মৃত্যুর সাতে পাঞ্জা লড়ছে।

গত বুধবার বিকেল ৩ টার দিকে পৌর শহরের হাসপতাল রোড থেকে মটরসাইকেল চালিয়ে রেহান উদ্দিন ভূঁইয়া রোডে প্রবেশ করার পরে হঠাৎ করে ৬ বছরে একটি শিশু কন্যা দ্রুত বেগে রাস্তার এই পাশ থেকে অপাশে দৌড় দেয়।

ঐ বাচ্ছাটিকে বাচাঁ গিয়ে মটর সাইকেলটিকে ব্রেক করলে মটরসাইকেলটিসহ ধুমরে –মুসরে উল্টে পড়ে। মুহুর্তে মধ্যে সাংবাদিক রবিউল ইসলাম ক্ষত-বিক্ষত হয়ে রাস্তা পাশে পড়ে যায়।

তাৎক্ষিন স্থানীয়রা আহত সাংবাদিক রবিউল ইসলামকে মুমুর্ষ অবস্থায় লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। ৩ দিন যাবত হাসপাতালে চিকিৎসার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক বাড়িতে বিশ্রাম নেওয়ার জন্য প্রেরেণ করেণ।

উন্নত চিকিৎসা না করতে পেরে বিছানায় কাতাচ্ছেন । দেখার মতো কেউ নেই। এই হলো নিয়তির খেলা। সাংবাদিক রবিউল ইসলাম জানান আমি মরে গলোও কি আর হতো ?

তবে আমি সাংবাদিক হিসেবে শিশু কন্যাটি মৃত্যূর কূপ থেকে বাঁচাতে পেরে নিজেকে ধণ্য মনে করছি। আজ আমার গাড়ি নিচে পড়ে শিশু বাচ্চাটি পিষ্ট হয়ে মারা যেতো তাহলে আমাকে অপমান অপদস্ত হইতে হতো এবং বিপুল অংকের টাকা ক্ষতিপূরন দিতে হতো ।

মহান সৃষ্টি কর্তা আমাকে অপমানিত না করে সম্মানিত করেছেন। রাব্বীল আলামীনের শোকরিয়া জ্ঞাপন করি। আল্লাহ যা কিছু করে বান্দার মঙ্গলের জন্যই করে । ভাল হোক আর মন্দ হোক বিপদে পড়লে বুঝা যায় কে বন্ধু কে শত্রু।

মহান রব যেনো আমাকে দ্রুত গতিতে সুস্থ করে তোলেন তার জন্য লক্ষ্মীপুরের সকল স্তরের নাগরিকদের কাছে সর্বচ্ছো দোয়া কামনা করছি । যেনো সুস্থত হয়ে আমার পেশায় আবার আগের মতো গণমানুষের জন্য তথ্য বহুল সংবাদ সংগ্রহ করে জনগণে সেবা করতে পারি । তার জন্য মহনা রবের সাহয্যে একান্ত কামনা করছি।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন