শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ ০৪:১৪:০৪ পিএম

মুসলিম হত্যার প্রতিবাদ করায় মমতাকে হিন্দুধর্ম ত্যাগ করতে বললেন বিজেপি নেতা

আন্তর্জাতিক | রবিবার, ২৯ জুলাই ২০১৮ | ০৩:১৬:০৮ পিএম

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হিন্দুধর্ম ত্যাগ করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন রাজস্থানের শ্রমমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা যশবন্ত সিং যাদব।

গরু পাচারকারী সন্দেহে রাজস্থানের আলোয়ার জেলায় গণপিটুনিতে রাকবার খান নামে এক মুসলিম ব্যক্তি নিহত হন। আর এর প্রতিবাদ করেন মমতা।

ওই ঘটনার পর মমতা বলেছিলেন, বিজেপি ভারতে তালিবানি হিন্দুত্বের বাতাবরণ তৈরি করতে চাইছে।

এ মন্তব্যের সমালোচনা করে যশবন্ত বলেন, যে বিষয় মন্তব্য করছেন সেটি উনি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) বোঝেন না। দেশকে ভালোও বাসেন না। সব হিন্দুত্ববাদী সংগঠনকে চরমপন্থী আখ্যা দিয়েছেন নির্লজ্জের মতো। তাই উনার উচিত হিন্দুধর্ম ত্যাগ করা। খবর এনডিটিভির।

এর আগে এ বিজেপি নেতা বলেছিলেন- ‘গো-মাতা’ কে জবাই বা চোরাচালান করলে হিন্দুরা চুপ করে থাকবে না।

এখনও নিজের সেই অবস্থানে অনড় যশবন্ত। তবে আইন নিজেদের হাতে তুলে নিয়ে কোনো ব্যক্তিকে প্রাণে মেরে ফেলা উচিত নয় বলেও তিনি স্বীকার করেন।

গত ২০ জুলাই রাতে আলোয়ারের রাস্তায় গণপিটুনিতে মৃত্যু হয় রাকবার খান নামে এক ব্যক্তির। ওই ঘটনার পর ভারতজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী থেকে শুরু করে অনেকেই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকারও নিন্দা করেন।

টুইট করে রাহুল জানান, আহত রাকবারকে চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যেতে দেরি করেছে পুলিশ। এটি না করলে তিনি প্রাণে বেঁচেও যেতে পারতেন।

প্রথম দিকে এ নিয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি রাজস্থান সরকার। পরে সরকারের তরফে দেরির অভিযোগ স্বীকার করে নেয়া হয়।

আর কর্তব্যে গাফিলতির জন্য এক সাব-ইন্সপেক্টর এবং তিন কনস্টেবলের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে বসন্ধুরা রাজে সিন্ধিয়ার সরকার।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন