বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭ ০৫:১৭:২২ এএম

কোরবানির গরুর সাথে ‘সেলফি’

মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বাবু | সাহিত্য | শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ | ০৯:৫৬:০৭ এএম

আমার মতো পাগল ফেসবুক ব্যবহার করতে পারলে ,গরু কেন নয়?ফুটানি নয় ,গরুর ছবি ,গরুর ছবির সাথের ছবি  ফ্যাশন হিসাবে মেনে নিলেই হয়। 
গরু যদি কুরবানী কবুল হয় ,ফেসবুকে দিলে গুনাহ হবার কথা নয় ! উটের ছবি দিলে চোখ বড়ো করে চেয়ে রয় !জুকার বার্গ এর উপর ও মাতাব্বুরি !
ল্যাংটা ছবি নিয়ে যতো না প্রতিবাদ হয় তার চেয়ে গরুর প্রতিবাদ হচ্ছে  বেশি  ,ভালো কাজে ,জনহিতকর কাজেএর অর্ধেক যদি প্রতিব্যাদ হতো পরিবর্তনের ছোঁয়া লাগতেও পারতো।
নেতার চাটুকারী,তেলবাজির ছবি দারুন উপভোগ করি ,মানুষ যেমন মানুষের পিছু লেগেছে গরুরা ও কি গরুর পশ্চ্যাতে  লাগলো কি?কবিতা লিখলে ফেসবুক কবির গালি !বিবেক,মানবতার কথা বললে নাক উঁচু !সত্য ন্যায়ের কথা বললে, ভালো লাগে না !ধর্ম প্রচার করলে সিল মহোর লাগানো হয় !রাজপথের ব্যাঙ,ফেসবুকে  ঘ্যাং ঘ্যাং করলে ভালো লাগে !ভেটকি মেরে সেলফি দেব ,তাতেও বলে চলে গালাগালি।
বেচারা গরু কয়দিন পর ছেড়ে যাবে পৃথিবী শেষ মেষ একটা সেলফি ,তাতেও অধিকার হরণ !ফেসবুক কি শুধু মানুষের জন্য ?প্রাণীদের অধিকার ছিনিয়ে নেয়ার অধিকার মানুষের গরুদের অধিকারও  কেড়ে নিতে চায় মানুষ !গরুর সাথে ছবি তুললেই গরু বলে ,গরু বানিয়ে দেয়া অন্যায় ,অন্যায় ,অবিচার। 
মসজিদে মন্দিরে দরগায় মক্কা মদিনায়  গির্জায় প্যাগোডায় ইবাদতের সময় সেলফি তুললে জায়েজ হয়। গরুর ছবির মন্দ কয়,পোষ্ট দাতাকে গরু কয় আমি এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই। 
হুজুগে বাঙালি ,যখন যা পাই, তাতেই করি মাতামাতি ,যেমন ,বাদ  দিলাম,কেটে দিলাম,সাফ করলাম বিদায় নিলাম ,বেহায়া করে কয় ?দু, দিন পরেই ফেসবুক বুকে লয়!
এই কথা ,না বলে ,প্রয়োজনে আসলেন অপ্রয়োজনে না আসলেন ,সমস্যা কি?
ভাই ,বাড়া ভাতে ছাই  না দিলে মানে, মানে সম্মানে আঘাত না করলে প্যান প্যানে কাজ কি? কষ্টের এই জীবনে প্রতিযোগিতার বাজের অস্থির যেখানে মস্তিস্ক আসুন  পজেটিভ কাজ করি ,ইনজয় করি.যে যার সুবিধা ,শখ মতো ফেসবুক ব্যবহার করি । 
বেইজ্যুতি নিজে না হই ,অন্য কে না করি !পয়েন্ট টু বি নোট ডাউন-এই লেখা পর্যন্ত গরুর ছবি দেই  নাই ,তবে দেব ,রক্ত ঘাম পানি অর্থে  কুরবানী দেব,ছবি দেব না ,তাই কি হয় আমার আসল দাদা ছবি দেয় নাই ,তখন কি কুরবানী হয় নাই ! ফেসবুক আমার নতুন  দাদা জুকার বার্গ এমনি তৈরী করেছে ?আমার আইডিতে আমি গরুর ছবি দেব ,আপনাকে ট্যাগ না করলেই হলো। 
রাজনীতি হতে পারে অসৎ লোকের লেকচার হতে পারে আত্মপ্রচার ,বিজ্ঞাপন হতে পারবে ,বান্দরের ,তেন্দরের ছবি থাকতে পারবে ,গরুর ছবি থাকবে না ,তা কি করে হয়। 
লক্ষ টাকায়  গরু কিনব ,তা কেউ জানবে না ,ভাবা যায় ,হ্যা জুকার বার্গের সময় এসেছে ,ট্যাক্স বসানোর ,মানে হাসিল উঠানোর গরু প্রতি কতো ,পাঠক বলতে পারো ,ফেসবুকে  কুরবানীর গরুর  সেলফি দেয়ার পক্ষে অবস্থান নিয়ে যুক্তির এইখানে শেষ হলো।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন