বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ ১০:১৩:৪০ এএম

রাষ্ট্রপতির সহায়তা চেয়ে বিএনপির চিঠি (ভিডিওসহ)

ডেটঃ ২৩-১১-২০১৬

নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে আবারও রাষ্ট্রপতির সহায়তা চেয়েছেন বিএনপি।

বুধবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কারযালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনের বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসর দলের একাধিক সিনিয়র নেতারা এ সহায়তা চান।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, রাষ্ট্রপতি দেশের সর্বোচ্চ পদে রয়েছেন। তিনিই পারেন দেশের এমন রাজনৈতিক অবস্থানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে। সকল দলকে একত্র করে আলোচনার মাধ্যমে নিরপেক্ষ নিরদলীয় নির্বাচন কমিশন গঠন করা।

বিএনপির পক্ষ থেকে টেলিফনে রাষ্ট্রপতির সরকারি পিএসের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে কিন্তু সেখান থেকে এখনো কোনো খবর আসে নাই। তাই বিএনপির তিন প্রতিনিধি আবারও আলোচনার জন্য চিঠি দিবে।

নির্বাচন কমিশন নিয়ে তিনি বলেন, দেশে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের কোনো বিকল্প নেই। যে নির্বাচনে ১৫৪ টি আসন বিনাপ্রতিদ্বন্দীতা ছাড়া জয়ী হয় তাদের কোনো অধিকার নেই নির্বাচন চালানোর।

বিরোধী দল হীন সংসদ দেশবাসিকে কিছু দিতে পারে না। দেশের মানুষের কাছে সংসদের গ্রহণযোগ্যতা হারিয়ে যাবে বলে জানান তিনি।

বিএনপির চেয়ারপারসন যে রুপরেখা দিয়েছেন সেখানে রাষ্ট্রপতি, সংবিধান বা বিচার বিভাগকে অবমাননা করা হয়নি বলে জানিয়ে তিনি বলেন, এই সব প্রতিষ্ঠানকে বিএনপি সব সময় সম্মান করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারে আমলে প্রশাসনের উচ্চ পরযায় থেকে নিম্ন পরযায় পরযন্ত সকলকে দলীয় করণ করেছে। তাদের নির্বাচনী এলাকায় নিয়োগ
অন্য খবরঃ "বাকশাল চায় আ.লীগ: খন্দকার মোশাররফ"
দিলে ভোটের রায় আওয়ামী লীগের পক্ষেই যাবে এতে কোনো সন্দেহ নেই।

সঠিকভাবে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের জন্য নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের কোনো বিকল্প নেই। দেশবাসিকে খালেদা জিয়ার দেওয়া প্রস্তাবনা গ্রহণ করে তার পক্ষে জনমত তৈরি করার আহ্বান জানান তিনি।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, মির্জা আব্বাস, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, খায়রুল কবির খোকন প্রমুখ।

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন

শেয়ার